বাংলা সিরিয়াল

আবারো এক ফ্রেমে ধরা দিলেন “মন ফাগুন” এর জুটি! পিহু ঋষির মিষ্টি জুটি ক্যামেরা বন্দী হতেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হল ভিডিও

বাংলা বিনোদন মাধ্যমের অন্যতম জনপ্রিয় একটি মাধ্যম হলো ধারাবাহিক। ধারাবাহিক জগতের বিভিন্ন চ্যানেলে আসতে থাকে একের পর এক নতুন ধারাবাহিক। আর ধারাবাহিকগুলি অল্প কিছুদিনের মধ্যে মানুষের মন জয় করে নেয়। টিআরপি রেটিং এ এই জনপ্রিয়তার পরিচয় স্পষ্ট ভাবে পাওয়া যায়। যে ধারাবাহিকগুলি টিকে থাকতে পারে না সেগুলোকে সরিয়ে দেওয়া হয় ধারাবাহিকের লিস্ট থেকে। সিরিয়াল প্রেমী দর্শকদের মধ্যে অন্যতম জনপ্রিয় একটি সিরিয়াল ছিল “মন ফাগুন”। অল্প কিছুদিনের মধ্যেই এই ধারাবাহিক মন জয় করেছিল দর্শকের। বিশাল ফ্যান বেস থাকতেও টিআরপি লিস্টে টিকে থাকতে না পেরে বন্ধ হয়ে যেতে হয় এই ধারাবাহিককে।

এই ধারাবাহিকের মুখ্য চরিত্র দেখতে পাওয়া যায় সৃজলা গুহ এবং শন ব্যানার্জিকে। ধারাবাহিকে এঁদের দুজনের চরিত্রের নাম ছিল পিহু এবং ঋষিরাজ। এদের দুজনের ভালোবাসার গল্প দর্শক মহলে বেশ জনপ্রিয়তা অর্জন করেছিল। কিন্তু ধারাবাহিক কি বন্ধ হয়ে যাওয়ায় মন খারাপ করেছিলেন “পিহুরাজ” ভক্তকুল। তারা বারবার চেয়েছিলেন যেন এই জুটি আবার এক ফ্রেমে ফিরে আসে।

বিশাল বড় ফ্যানবেস থাকার কারণে ধারাবাহিক শেষ হয়ে গেলেও মানুষ চেয়েছিলেন যেন এই জুটিকে আবার নতুন করে দেখতে পাওয়া যায়। প্রিয়দর্শনী এবং ঋষিরাজের ফ্যান পেজ থেকে বারবার দাবি জানানো হয়েছিল চ্যানেল কর্তৃপক্ষকে যে তাঁরা যেন আবার ফিরিয়ে আনেন এই জুটিকে। সম্প্রতি অভিনেত্রী সৃজলাকে ডান্স ডান্স জুনিয়র এর মঞ্চে দেখা গেলেও শনকে কোথাও দেখতে পাওয়া যায়নি। এরপরেও দর্শকের দাবি উঠেছিল।

সম্প্রতি এই জুটিকে দেখতে পাওয়া গেল একই ফ্রেমে। কালী পূজা উপলক্ষে তমলুকের তমলুকের একটি ক্লাবে প্রোগ্রাম করতে গিয়েছিলেন এই জনপ্রিয় জুটি। এই ভিডিওটি ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। তবে এই ভিডিও দেখে সোশ্যাল মিডিয়ার দর্শকেরা বেশ খুশি হয়েছেন। পর্দার মিস বৃষ্টি বাড়ি আর রাফতাফ ঋষিরাজ সেন কে আবার খোলা মঞ্চে একসাথে পারফর্ম করতে দেখে প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়েছেন নেটিজেনরা। এদিনের ভিডিওতে দেখতে পাওয়া গেল স্টেজে দাঁড়িয়েই অনুরাগীদের আবদার রেখে সকলের সাথে হ্যান্ডশেক করছেন তাঁরা। আবার অনুরাগীদের আবদার সেলফি তুলছেন এই তারকা জুটি।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।