বাংলা সিরিয়াল

‘বুড়ো বর আর থাকতে না পেরে নিজের কচি বউকে বলেই দিল ভালোবাসার কথা’, ‘নোলক আমার স্ত্রী আর আমি ওকে ভালোবাসি’, শেষমেশ নোলকের বরকে ভুলে যাওয়ার নাটক সার্থক হলো

নতুন শুরু হওয়া ধারাবাহিকের মধ্যে একটি উল্লেখযোগ্য ধারাবাহিক হলো ‘গোধূলি আলাপ’। সাম্প্রতিক একটি বার্তা নিয়ে শুরু হওয়া এই ধারাবাহিক বেশ অল্প কয়েক দিনের মধ্যেই মন জয় করে নেয় দর্শকের। প্রথমে সবাই এই ধারাবাহিকের প্লট নিয়ে প্রশ্ন তুললেও বর্তমানে এই ধারাবাহিক সবাই এনজয় করছেন। কিন্তু মাঝে কিছুদিন গোধূলি আলাপের টিআরপি খারাপ হওয়ায় শর্ট পরিবর্তন হয়ে যায় এই ধারাবাহিকের। আর সেই স্লট অধিকার করে ‘উড়ণ তুবড়ি’। কিন্তু এখন বেশ ভালই বোঝা যাচ্ছে যে স্মার্ট পরিবর্তন হওয়াটা ভুলই হয়েছে।

জন্মাষ্টমী সেই কবেই চলে গেছে কিন্তু সবে গতকাল জন্মাষ্টমীর পুজো শুরু হয়েছে গোধূলি আলাপে। গতকাল অরুন্ধতীর নির্দেশে নোলক গোপাল ঠাকুর প্রতিষ্ঠা করেছে। তাও আবার রোহিনীর হাত থেকে নিয়ে। তবে রোহিনী কিন্তু নিজের বদমাইশি বজায় রাখছিল। কিন্তু আজকেই হবে সেই বহু প্রতীক্ষিত এপিসোড। আজকেই অরিন্দম বলবে তার মনের কথা। নিজের বয়স সম্মান সবকিছুর কাছে অরিন্দম আটকে যাচ্ছিল ভালোবাসার আগে। কিন্তু এবার নিজের কচি বউকে বুড়ো বড় ভালোবাসার কথা বলবে। এতে বেজায় খুশি দর্শক।

কিন্তু নোলোকে চ্যালেঞ্জ করা হয়েছিল যে দেখা যাবে তার পাশে বর হিসেবে কে বসবে। সে কথা শুনে নো লোক একটু ঘাবড়ে গিয়েছিল বটে। কিন্তু আজকের পর্বে দেখানো হবে যে নোলক আর অরিন্দমের মধ্যে কথা কাটাকাটি চলবে। আর তারই মধ্যে অরিন্দম মেজাজ হারিয়ে বলে ফেলবে যে নোলক আমার স্ত্রী আমি ওকে ভালোবাসি। আর এইটুকু কথা শোনার জন্যই তো নোলক এতদিন ধরে নিজের স্মৃতি ভুলে যাওয়ার অভিনয় করছিল। আজ তাই সার্থক হবে।

কিন্তু বাড়ির সবার সামনে কথাটা বলে নিজেই হতভম্ব হয়ে যাবে অরিন্দম। তবে নোলকের মনের খুশি যেন আর ধরে না। সত্যিটা শুনে এবার নোলকও হয়তো নিজের স্মৃতি হারিয়ে ফেলার রহস্য ফাঁস করবে। যে সবটাই সে অভিনয় করছিল এইটুকু কথা শোনার জন্য। আরো কি কি ঘটতে চলে সেটা জানতে হলে নজর রাখতে হবে ‘গোধূলি আলাপ’ এ।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।