বাংলা সিরিয়াল

স্যাড সিন করতে গিয়ে ইমোশনাল হয়ে হাউ হাউ করে কাঁদতে থাকেন সিদ্ধার্থ! পর্দার উচ্ছে বাবুর বিশেষ দিককে সামনে আনলেন উচ্ছে বাবুর পর্দার দাদাই

বর্তমানে ধারাবাহিক জগতে যদি কোন ধারাবাহিক সবথেকে বেশি নাম করে থাকে তা হলো মিঠাই। এই ধারাবাহিকে মাদক পরিবারের নাতি সিদ্ধার্থ মোদককে আমরা সকলেই চিনি। এই চরিত্রে অভিনয় করছেন অভিনেতা আদৃত রায়। তাঁর অভিনয় দর্শকের ভীষণ পছন্দের। তেমনই তাঁর একটা সাক্ষাৎকারের জন্যেও মুখিয়ে থাকেন দর্শক। সেইসব চাহিদা পূরণ করেই এক সংবাদ মাধ্যম সম্প্রতি সামনে এনেছে সিদ্ধার্থের একটি সাক্ষাৎকার।

যদিও সে সাক্ষাৎকারে একটা সিদ্ধান্ত নয় সাথে ছিল উচ্ছে বাবুর পর্দার দাদাইও। এই সাক্ষাৎকার থেকে উঠে আসে শুটিং সেটের একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ কথা। আসলে একজন অভিনেতা যখন অভিনয় করেন তখন তাঁকে বেশ কিছু সিনের অভিনয় করতে হয়। কখনো দুঃখের সিন তো আবার কখনো হাসির সিন। সব সিনের মধ্যেই নিজেকে খাপ খাইয়ে নিতে হয়।

কোন কোন অভিনেতা আছেন যে অভিনয় করতে করতে তাঁরা চরিত্রের মধ্যে ঢুকে পড়েন। তখন কিছুক্ষণের জন্য তাঁরা আর সেই চরিত্র থেকে বেরোতে পারেন না। হয়তো সেই চরিত্র কোন ইমোশনাল পর্বের মধ্যে ছিল। তখন অভিনেতা ও সেই ইমোশনাল পর্বটিকে ফেস করতে গিয়ে খুবই ইমোশনাল হয়ে পড়েন। তখন অনেক কষ্টে তাঁকে বুঝিয়ে সামাল দিয়ে আবারো অভিনয় ফিরতে হয়। তেমনই একটি ঘটনা ঘটে আমাদের উচ্ছে বাবুর সাথে।

ধারাবাহিকের একটা পার্ট ছিল যেখানে দাদাই ভীষণভাবে অসুস্থ হয়ে পড়বে। আর সেই টুকু সিন করতে গিয়ে আদৃত ভীষণভাবে ইমোশনাল হয়ে পড়েন। আসলে তখন তাঁর নিজের দাদুর কথা মনে পড়ে গিয়েছিল। তখনই সে হাউহাউ করে কাঁদতে থাকে। কিন্তু তখন ডিরেক্টর এবং সেটের অন্যান্য অভিনেতা অভিনেত্রী রাধাকে বুঝিয়ে শান্ত করেন। এই প্রসঙ্গে সিদ্ধার্থের অনস্ক্রিন দাদাই বলেন, “এই ইমোশনাল হওয়াটা কিন্তু ওর লুস পয়েন্ট নয় এটাই ওর ক্যাপিটাল। ও যে পরিবারের সাথে ভীষণভাবে এট্যাচ আছে সেটা বোঝা যায় এই থেকে”।

প্রসঙ্গত এক নেটিজেন এই ইন্টারভিউটি শেয়ার করে সোশ্যাল মিডিয়ায় আদৃতের গুণ উল্লেখ করে লিখেছেন, “বিশ্বাসে মেলায় বস্তু,তর্কে বহুদূর…. বিশ্বাস করে,বিশ্বাস রেখে জিতে যাওয়ার মধ্যে যে কি আনন্দ তা তো মিস করে গেলে তোমরা। হ্যা এই মানুষটাকেই তো নিকৃষ্ট বলেছিলে না?দেখো প্লিজ।একটা মানুষ যতযাই অভিনয় করুক,’শুদ্ধতা’র অভিনয় করতে পারে না।মানুষ শুদ্ধ হয় মনে,আর তো ফুটে ওঠে তার সমগ্র আচরণে! প্লিজ নেক্সট টাইম আর কষ্ট দিও না ওকে………Adrit এবং গোপু অলওয়েজ বেস্ট”।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by mithai prem (@mithailoves)

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।