বাংলা সিরিয়াল

‘আদৃতের স্বভাবই হলো অপর মানুষকে জড়িয়ে ধরার সময় হাত মুঠো করে রাখা, যাতে সামনের জন অস্বস্তি ফিল না করে!’-মিঠাই সিদ্ধার্থের ছবি সহ আরো দুটি ছবি দিয়ে প্রমাণ করে দিলেন আদৃত ভক্ত!

জি বাংলার জনপ্রিয় ধারাবাহিক হলো ‘মিঠাই’। এই ধারাবাহিক ৫৬ বার বেঙ্গল টপার হয়েছে। ইদানিং কিছু সময় এই ধারাবাহিকের টিআরপি একটু কম এবং স্লটলিড করতে না পারলেও এই ধারাবাহিকের জনপ্রিয়তা আজও তুঙ্গে সে বিষয়ে কোনো প্রশ্ন নেই। দেড় বছরের বেশি সময় ধরে চলা এই ধারাবাহিকে নায়ক ও নায়িকার মধ্যে রোমান্স এখনো দেখানো হয়নি, তাই এই বিশেষ দৃশ্য দেখবার জন্য দর্শকরা দীর্ঘ সময় ধরে চাতকের পাখির মত অপেক্ষা করে বসে ছিলেন।

দর্শকদের দীর্ঘ অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে গতকালের এপিসোডে দেখানো হলো সিদ্ধার্থ ও মিঠাই কাছাকাছি এসেছে। আদিত্য আগারওয়াল মিঠাই কে কিডন্যাপ করে নেওয়ার পর সিদ্ধার্থ রীতিমতো পাগলের মত করতে থাকে এরপর মিঠাইকে ফিরে পেয়ে দুজনে ভালোবাসার বন্যায় হারিয়ে যায়। কিন্তু এই দৃশ্য নিয়ে দর্শকদের অভিযোগ রয়েছে যে, সেইভাবে দুজনের মধ্যে রোমান্স দেখানো হয় নি।

আবার এক অংশের মানুষ এই দৃশ্য দেখে প্রশংসা করছেন যে,৮-৮০ র কথা ভেবে এই রোমান্টিক দৃশ্যে অন্তরঙ্গতা বেশি দেখানো হয় নি। দর্শকদের একাংশের মানুষ আবার দাবী করেছেন যে, এই ধারাবাহিকে সিদ্ধার্থ অর্থাৎ আদৃত যেভাবে মিঠাইকে জড়িয়ে ধরেছেন তা অনবদ্য। দর্শকরা বলছেন আদৃত রায়ের স্বভাব টাই এরকম যে তিনি জড়িয়ে ধরলে সবসময় হাত মুঠো করে জড়িয়ে ধরেন যাতে তার অপর সঙ্গী কখনোই অস্বস্তি ফিল না করেন।

এই অংশটা যে স্ক্রিপ্টেড নয়, এটা আদৃতের চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য এটা বোঝানোর জন্য ঐ দর্শক আদৃতের তিনটি ছবির কোলাজ করে ক্যাপশনে লেখেন,“ পর পর তিনটি ছবি দিলাম যাতে আপনাদের বুঝতে অসুবিধা না হয় যাদের সিদ্ধার্থর হাত মুঠো করে রাখা নিয়ে সমস্যা তারা ভালো করে দেখুন সিদ্ধার্থ হোক বা আদৃত সব সময়ই হাত মুঠো করে রাখে। আসলে কিছু অভ্যাস যেটা আমাদের থেকেই যায়। তাই ও হাত মুঠো করে ফেলে পাশে যেই থাকুক না কেন।”

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।