বাংলা সিরিয়াল

‘দুষ্কৃতিদের হাত থেকে বাঁচতে কালীর ছদ্মবেশ নেওয়া আর গৌরী এলোতে গৌরীকে সাক্ষাৎ কালী রূপে প্রোমোট করা দুটোর মধ্যে পার্থক্য আছে ট্রোলিংটা জেনে করবেন’-দীপার সাথে গৌরীর তুলনা টানতেই ধুয়ে দিলেন অনুরাগের ছোঁয়ার দর্শক!

স্টার জলসার জনপ্রিয় ধারাবাহিক অনুরাগের ছোঁয়া। এই ধারাবাহিক প্রথম থেকে বরাবর স্লটলিড করে গেছে। এই ধারাবাহিকে সব সময় একটা ধামাকাদার এপিসোড হয় আর সূর্য দীপার রসায়ন ও এই ধারাবাহিকে সকলের খুব পছন্দের। সম্প্রতি যেমন ধারাবাহিকে নতুন একটি ট্রাক এসেছে যেখানে দেখানো হচ্ছে মিশকা সূর্যকে ভুল বুঝিয়েছে যে সূর্য কখনো বাবা হতে পারবে না তাই সূর্য দীপা কে সন্দেহ করছে যে দীপার গর্ভের সন্তান কবীরের। এই পুরো ঘটনায় দীপার শাশুড়ি লাবন্য দীপার পাশে দাঁড়িয়েছে এবং সে জানিয়েছে আর কেউ বিশ্বাস না করলেও দীপাকে সে বিশ্বাস করে।

এরপর অগ্নিপরীক্ষায় না জানিয়ে দীপা সূর্যর কাছ থেকে বেরিয়ে আসে অন্য একটা বাড়িতে গিয়ে সে আশ্রয় নেয় কিন্তু এখানে থেকেও সে নিরাপদে থাকতে পারে না। কারণ লাবণ্যর বাবা-মার হত্যাকারী কুমার যাকে কিছুদিন আগেই পুলিশে ধরিয়ে দিয়েছিল দীপা। সে দীপাকে কিডন্যাপ করে আর সমস্ত ঘটনার দায় গিয়ে পড়ে সূর্যর ওপর সূর্যকে পুলিশ অ্যারেস্ট করে দীপা হত্যার দায়ে। সবটা জানতে পেরে দীপা কোন ভাবে কুমারের খপ্পর থেকে বের হতে খাড়া হাতে তুলে নেয় আর কুমার দেখে দীপা তো নয় যেন সাক্ষাৎ মা কালী তার সামনে দাঁড়িয়ে আছে।

এই ধারাবাহিকের এই প্রমো সামনে আসতেই সবাই বলতে শুরু করেছেন যে এই ট্র্যাকটি নাকি গৌরী এলোর কপি। কিন্তু গৌরী এলোতে যেখানে গৌরীতে সাক্ষাৎ মা কালি রূপে প্রেজেন্ট করা হয়েছিল সেখানে অনুরাগের ছোঁয়াতে দেখানো হয়েছে দুষ্কৃতীদের হাত থেকে বাঁচতে দীপা হাতে খাড়া নিয়ে ছুটে গেছে আর তার এই তেজ দেখে কুমারের মনে হয়েছে সে যেন মা কালী। বাস্তবিক প্রত্যেক মেয়ের মধ্যে মা দুর্গা বা মা কালীর শক্তি লুকিয়ে থাকে- এইটাকে ধারাবাহিকের মধ্যে দেখানো আর একটি মেয়েকে সম্পূর্ণ মা কালী রূপে প্রেজেন্ট করা দুটোর মধ্যে যে পার্থক্য আছে তাই বলতে চাইছেন অনুরাগের ছোঁয়ার দর্শকেরা।

যাবতীয় ট্রোলিং এর জবাবে তারা লিখেছেন, “ আজ অনেককে বড় বড় রচনা লিখতে দেখলাম । যে গৌরী এলোকে নাকি কপি করেছে অনুরাগের ছোঁয়া । কিন্তু দুটো প্রোমোর মধ্যে আমি কোনো মিল পেলাম না । কেন পেলাম না বলছি নিচে ।
প্রথমত গৌরী এলোর প্রোমোতে দেখানো হয়েছে দুর্ষ্কৃতিদের মারতে মারতে গৌরী একদম অপ্রতিরোধ্য হয়ে গেছে আর গৌরীকে থামাতে ঈশান ওর পায়ের নিচে শুয়ে পড়েছে । না মানে এটা একটু বাড়াবাড়ি নয় কী ? অবশ্যই এটা পুরাণের গল্পকে অপমান করা আর নিন্দনীয়ও বটে । মানে গৌরী এলোতে গৌরীকে সাক্ষাৎ দেবী কালী বানিয়ে দেওয়া হয়েছে ,এমনকি গৌরীর পেছনে দিব্যরশ্মিও দেখাচ্ছে যা অবশ্যই বিশ্বাসযোগ্য নয় । আর অনুরাগের ছোঁয়াতে দীপা সূর্যকে বাঁচাতে মা কালীর ছদ্মবেশ নিয়েছে, গৌরীর মতো একেবারে উগ্রচণ্ডী সাক্ষাৎ কালী হয়ে যায়নি । আর এই বিষয়টা নিয়ে দুই ধারাবাহিকের প্রেক্ষাপটও ভিন্ন । যেটা অনুরাগের ছোঁয়ায় একটু হলেও গ্রহণযোগ্য বলে অন্তত আমি মনে করি ।”

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।