বাংলা সিরিয়াল

ইউনিটের কর্মীকে চ্যাংদোলা করে তুলে ডাস্টবিনে ফেলে দিল আদৃত আর রাতুল! সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল সেই ভিডিও

জি বাংলার জনপ্রিয় ধারাবাহিক মিঠাই। অজানা অচেনা পরিবেশেও ভালোই মিলেমিশে কেটে যাচ্ছে তাঁদের জীবন। জীবনের নানান ওঠাপড়ার মধ্যে দিয়ে আনন্দ মজা হাসি ঠাট্টা করেই কাটে মোদক পরিবারের প্রত্যেকটি দিন। তেমনি একটি ভিডিও দেখা গেল সোশ্যাল মিডিয়ায়।

সম্প্রতি মিঠাইয়ের মুখ্য চরিত্র উচ্ছেবাবু অর্থাৎ আদৃত রায়ের ফ্যান পেজ থেকে একটি ভিডিও পোস্ট করা হয়। যেখানে গোটা মিঠাই ইউনিটকে হাসি ঠাট্টা মজা করে সময় কাটাতে দেখা যাচ্ছে। যদিও মিঠাইয়ের নায়ক আদৃত রায়ের নিজস্ব কোন ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইল নেই। কিন্তু আদৃতের সমস্ত ভিডিও ফটো সবকিছুই দর্শকদের সামনে তুলে ধরেন আদৃতের ফ্যান পেজগুলি। আর তাদের দৌলতই এবার দেখা গেল মিঠাই এর সেটের পেছনের খুনসুটির ঘটনা।

ভাইরাল হওয়া সেই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে সেটের বিভিন্ন লোকজনের সাথে কলাকুশলীদের খুনসুঁটি। মিঠাইয়ের ইউনিটে একজন টেকনিশিয়ান আছেন যাঁর নাম সঞ্জয়। ইনি অভিনেতা – অভিনেত্রীদের পোশাকের তত্ত্বাবধানে রয়েছেন। তিনি নিজেও কলাকুশলীদের সাথে খুনসুঁটি করেন। তাই কলাকুশলীরাও আনন্দ করে তাঁকে খুনসুঁটির মাধ্যমে সবটা ফিরিয়ে দেন।

সম্প্রতি আদৃত রায়ের ফ্যান পেজ থেকে যে ভিডিওটি পোস্ট করা হয়েছে সেখানে দেখা যাচ্ছে আদৃত প্রথমে এগিয়ে যান সঞ্জয়ের দিকে। তারপর তাঁকে কোলে তুলে নেওয়ার ব্যর্থ চেষ্টা করেন। সেসব ছাড়িয়ে সঞ্জয় পালিয়ে যাবার চেষ্টা করেন। অভিনেতা সেটা করতে না পারায় রাতুল ওরফে উদয়-প্রদীপ সিং এগিয়ে আসেন আদৃতকে সাহায্য করতে। নিজের ভগ্নিপতির সঙ্গে জুটি করে সঞ্জয়কে চ্যাংদোলা করে তোলেন আদৃত। তারপর তাঁকে নিয়ে গিয়ে একটি লাল রঙের ডাস্টবিনে ফেলে দেন।

আর এই সবটা দেখেই দর্শক হেসে লুটোপুটি খাচ্ছেন। যদিও এই ভিডিওর পেছন থেকেও শোনা যাচ্ছে অট্টহাস্যের রোল। যদিও ব্যাপারটা খুবই স্পষ্ট যে সবটাই খুনসুটির অংশ। সঞ্জয় নিজেও আদৃতের সঙ্গে বা মিঠাই ইউনিটের কলাকুশলীদের সঙ্গে বেশ হাসিঠাট্টা মজা করেন। আর তাইতো কলাকুশলিরাও সবটা ফিরিয়ে দেন হাসিঠাট্টার আর খুনসুঁটির মধ্যে দিয়েই।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Adrit Roy (@adritofficialc)

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।