বাংলা সিরিয়াল

“মহাদেব নিজেই রুষ্ট হবেন এই মহাদেবকে দেখে” – কালার্স বাংলায় মহাদেবের চরিত্রে সম্রাট কে কেঁদে কেটে একসা হতে দেখে বিরক্ত দর্শক, দুষছেন চ্যানেল কর্তৃপক্ষকে

আর হাতেগোনা কয়েকটা দিন। তারপরেই মহালয়া। পিতৃপক্ষের শেষ এবং দেবিপক্ষের শুরু এর মত শুভ তিথির সেই দিনটি। প্রতিবছর মহালয়াতে বাঙালি অভ্যস্ত বীরেন্দ্রকৃষ্ণ ভদ্রের কন্ঠে দেবী বন্দনা শোনায়। তার পাশে দেবী বন্দনা সমাপ্ত হলেই টেলিভিশনের পর্দায় দেবীর আরাধনা দেখতে ব্যস্ত হয়ে পড়েন মানুষ। প্রত্যেকটি চ্যানেল তাঁদের নিজেদের নিজেদের মতো করে মহালয়া দিনের বিশেষ অনুষ্ঠান সম্প্রচারিত করেন। স্টার জলসা ও জি বাংলার খবর আমরা ইতিমধ্যেই পেয়েছি। কিন্তু সম্প্রতি সামনে এসেছে কালার্স বাংলার কিছু প্রমো। সেখানেই দেবাদিদেব মহাদেব কে কান্নাকাটি করে একসা হতে দেখে রেগে আগুন হয়েছেন দর্শক।

প্রসঙ্গত কালার্স বাংলার মহালয়ার অনুষ্ঠানে দেবাদিদেব মহাদেবের চরিত্রে দেখতে পাওয়া যাবে অভিনেতা সম্রাট মুখোপাধ্যায়কে। কিন্তু সেখানে মহাদেবের আচরণে রীতিমত তাজ্জব বনে গেছেন দর্শক। মহাদেব কাঁদছেন আবার ভয় পাচ্ছেন। “মহামায়ার ব্রহ্মময়ী রূপের দর্শনে কবে এরকম ভয় পেয়ে কেঁদে কেটে একসা করেছিলেন মহাদেব?” আবার দেখানো হচ্ছে সবার তাণ্ডব দেখে ভয়ে নাকি ধাপ করে এক জায়গায় বসে পড়েছিলেন মহাদেব। কালার্স বাংলায় দেবাদিদেব মহাদেবের এমন অবস্থা দেখে রীতিমতো অবাক হচ্ছেন দর্শক।

নিজের আরাধ্য দেবতার এমন অবস্থা দেখে রেগে গিয়েছেন অনেকেই। একজন বলেছেন, “শিব আবার ভয় পায়?” আবার আরেকজন বলছেন, “এটা মহাদেবের অপমান ছাড়া কিছুই না। যার মধ্যেই সৃষ্টির অংশ রয়েছে তিনি কীভাবে ভয় পাবেন”। তার সাথে আবার অভিনেতা সম্রাটের অভিনয়। সে সব দেখে তো ভিরমি খেয়েছেন দর্শক। আবার শিবের সাজসজ্জাতেও বিরক্ত তারা। তাদের বক্তব্য “শিব নীলকন্ঠ থেকে কপালকুণ্ডলা হয়ে গেলেন কী করে?”

এছাড়াও “অভিনেতাদের একটুও লজ্জা নেই এইধরনের আচরণে!”, “মহাদেব নিজেই রুষ্ট হবেন এই মহাদেবকে দেখে”, “এ আবার কেমন দুর্গা স্বামী পিতৃধামে যেতে দিল না বলে বরকে আবার ভয় দেখাচ্ছে!” এমনই আরো নানা রকম মন্তব্য করেছেন দর্শক। চ্যানেল কর্তৃপক্ষকে দুষছেন সোশ্যাল মিডিয়ার একাংশ। এমন বলেছেন, “দেবদেবী নিয়ে খিল্লি করছেন?”

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Colors Bangla (@colorsbangla)

এদিকে মহালয়া দিন ভোর পাঁচটায় সম্প্রচারিত হবে এই বিশেষ অনুষ্ঠান। কিন্তু দর্শক দেব-দেবীদের সাজগোজ অভিনয় সবকিছু নিয়েই খিল্লি করছেন। একজন বলেছেন, “এসব দেখার পর আর অনুষ্ঠান দেখতে ইচ্ছেই করে না। রেডিওতে মহালয়া শোনার যে আলাদা এক অনুভূতি, তাঁর সঙ্গে টিভির অনুষ্ঠান যে একেবারেই খাপ খায় না”।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।