বাংলা সিরিয়াল

আজকালকার মহালয়া দেখলে রীতিমতো হাসি পায়, নব্য প্রজন্মের নতুন মহালয়া নিয়ে মত সোশ্যাল মিডিয়ায়

বাঙালির সাথে মহালয়া যুক্ত ওতপ্রোতভাবে। সারাটা বছর প্রত্যেকটি বাঙালি অপেক্ষা করে থাকে মহালয়ার ভোরের জন্য। একটা সময় ছিল যখন সকলে মহালয়ার ভোরে তাদের বেতার যন্ত্রে বীরেন্দ্রকৃষ্ণ ভদ্রের মুখে শুনতেন পবিত্র মহালয়া। কিন্তু সময়ের সাথে তাল মিলিয়ে বদলেছে টেকনোলজি। আজকাল বহু বেসরকারি চ্যানেল নানা রকম ভাবে মহালয়ার দিন মহিষাসুরমর্দিনী সম্প্রচার করে থাকে। বরাবরই এই সকল অনুষ্ঠানগুলিকে নিয়ে দর্শকদের মনে একটা “কিন্তু কিন্তু ভাব” লক্ষ্য করা গেছে।

নব্য প্রজন্ম সময়ের সাথে তাল মিলিয়ে পা রেখেছে টেকনোলজির যুগে। আজকাল আর কোন ঘরেই প্রায় বেতার যন্ত্র দেখতে পাওয়া যায় না। সেই সব বেতার যন্ত্রের জায়গা নিয়েছে আধুনিককালের স্মার্ট টিভি। সেই টিভিতে বিভিন্ন বেসরকারি চ্যানেল সম্প্রচার করে বর্তমান প্রজন্মের অভিনেতা – অভিনেত্রীদের অভিনীত মহিষাসুরমর্দিনী। সমস্যাটা সেখানেই।

সোশ্যাল মিডিয়ায় আজকাল জোড় বিতর্ক চলছে এই মহিষাসুরমর্দিনী এপিসোড গুলিকে নিয়ে। সকলেরই প্রায় বক্তব্য যে আসল মহিষাসুরমর্দিনের সাথে বর্তমান সম্প্রচারিত অনুষ্ঠানগুলির কোন মিল থাকেনা। অনেকেই আবার মজা করে বলছেন যে বর্তমানে টেলিভিশন চ্যানেলগুলিতে যে মহিষাসুরমর্দিনী দেখানো হয় তাতে মা দুর্গার রূপ ও কার্যকলাপ রীতিমত হাস্যকর।

দশমহাবিদ্যার অন্যতম এক রূপ হল মা বগলামুখী। সাম্প্রতিক একটি বেসরকারি চ্যানেলের প্রমোতে আবার দেখা যাচ্ছে মা বগলামুখীরুপী এক অভিনেত্রী খোঁজ করছেন মদনাসুরকে। যুদ্ধের ভঙ্গিমার বদলে নৃত্যের মাধ্যমে তিনি যুদ্ধ করছেন তার সাথে। এই প্রমো দেখে এখন রীতিমতো বিরক্ত নেটিজেনরা। সিংহভাগ মানুষেরই বক্তব্য পুরনো দিনের দূরদর্শনে প্রচারিত মহিষাসুরমর্দিনী এর থেকে অনেকটাই চিত্তাকর্ষক ছিল।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।