বাংলা সিরিয়াল

“খড়ি শুধু মুখে কথা বলেই শান্ত হয়ে যায়, অয়নাকে সোজা করা ওর কম্ম নয়” – অয়নার মতো চরিত্রকে সোজা করতে পারে একমাত্র দ্যুতি আর বনি! নতুন এপিসোড দেখে উচ্ছসিত দর্শক

স্টার জলসার অন্যতম জনপ্রিয় ধারাবাহিক “গাঁটছড়া”। মিঠাইকে টেক্কা দেওয়ার জন্য শুরু করা হয়েছিল স্টার জলসার পক্ষ থেকে ধারাবাহিককে। হচ্ছেও ঠিক তেমন। মিঠাই কে জোরদার টক্কর দিচ্ছে এই ধারাবাহিক। গত দু সপ্তাহ ধরে টিআরপি তালিকায় প্রথম স্থান অর্থাৎ বাংলার সেরা ধারাবাহিক হচ্ছে “গাঁটছড়া”। এর আগেও মিঠাই কে পিছনে ফেলে এগিয়ে গিয়েছিল এই ধারাবাহিক। বর্তমানে শীর্ষস্থান ধরে রাখার জন্য নতুন টুইস্ট আনা হয়েছে এই ধারাবাহিকে। ধারাবাহিকটি শুরু হবার পর থেকে বেশ ভালই নজর কেড়েছিল দর্শকের। দর্শক আকর্ষণে সার্থক হয়েছিল এই ধারাবাহিক। এছাড়াও এই ধারাবাহীকে রয়েছে এক একজন পরিচিত আর জনপ্রিয় মুখ। এর জন্যই হয়তো ধারাবাহিকের প্রতি আকর্ষণ মানুষের আরো বেশি।

এই ধারাবাহিকের মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করতে দেখতে পাওয়া যাচ্ছে অভিনেতা গৌরব চ্যাটার্জি এবং অভিনেত্রীর সোলাঙ্কি রায়কে। তবে এই দুজন ছাড়াও রয়েছে শ্রীমা ভট্টাচার্য ,অনিন্দ্য চ্যাটার্জী, রিয়াজ লস্কর, অনুষ্কা গোস্বামী প্রমূখরা। তাদের এই তিন জুটি দর্শকের খুবই পছন্দের। এই জুটি অল্প কিছুদিন সময়ের মধ্যেই মন কেড়ে নিয়েছে দর্শক মহলের। এই ধারাবাহিকে তিন অভিনেত্রীকে একে অপরের বোনের ভূমিকায় অভিনয় করতে দেখা যাচ্ছে। আর তিন অভিনেতাকে দেখা যাচ্ছে তিন ভাইয়ের চরিত্রে।

ধারাবাহিকে অভিনেতা শ্রীমা ভট্টাচার্যকে দেখতে পাওয়া যাচ্ছে বড় বোন দ্যুতির চরিত্রে। মেঝোবন ঘড়ির চরিত্রে দেখতে পাওয়া যাচ্ছে অভিনেত্রী সোলাঙ্কি রায়কে। যদিও ধারাবাহিকের মুখো চরিত্রই সোলাঙ্কি অর্থাৎ খড়ি। আর ছোট বোন বনির চরিত্র দেখতে পাওয়া যাচ্ছে অভিনেত্রী অনুষ্কা গোস্বামী কে। কিন্তু বনির চরিত্র স্বভাবতই খুবই ডানপিটে সাহসী। খড়ি ঠিক তার উল্টো। শান্ত বুদ্ধিমতী একটি মেয়ে। দুটি খলনায়িকা থাকলে প্রথমে এখন তার চরিত্রে বেশ কিছু বদল এসেছে যা খুবই পছন্দ করছেন দর্শক। তাই দুই বোন দ্যুতি আর বনি মিলে শাস্তি দিচ্ছে অপরাধীকে।

কিছুদিন আগে থেকেই ধারাবাহিকের পর্বে দেখানো হচ্ছিল যে দত্ত জুয়েলার্সের অধিকর্তা দত্তবাবুর মেয়ে অয়না সিংহরায় বাড়ি থেকে বদলা নেওয়ার জন্য সেই বাড়িতে এসে উপস্থিত হয়েছে। বিভিন্ন ধরনের যুক্তি খাটিয়ে থেকে গেছে সেই বাড়িতে। তার লক্ষ্য ছিল সিংহ রায় বাড়ির ছোট ছেলে কুনালকে বিয়ে করে সিংহ রায় বাড়িতে পাকাপাকি থেকে যাওয়া। আর তাকে থাকতে দেওয়া হয়েছে। তখনো তিন বোনকে যথেষ্ট ছোট করার চেষ্টা করেছে সমস্ত বাড়ির সামনে। যদিও বনে এর আগে যোগ্য জবাব দিয়েছিল অয়নাকে চড় মেরে।

কিন্তু এত বড় অপমান হওয়ার পরেও দেখানো হয়েছে যে হয়োনা, আবার নির্লজ্জের মত ফিরে এসেছে সিংহ রায় বাড়িতে। কিন্তু এবারে সবার সামনে খুব ভালো সাজছে। তারপরেও নিজের বিয়ের দিন সকালে গায়ে হলুদের জায়গায় দাঁড়িয়ে ভট্টাচার্য বাড়ির তিন মেয়েকে বারবার নানা কথা বলে ছোট করছিল সে। আর সেই কথার যোগ্য জবাব দিয়েছে দ্যুতি। দুটি সোজা এসে হাতে করে মাটি তুলে নিয়ে অয়নাকে টেনে তার মুখে মাখিয়ে দিয়েছে চরের ভঙ্গিমায়। আর সেই দেখেই বেশ উচ্ছ্বসিত দর্শক। তাদের মতে খড়ি শুধুমাত্র মুখে কথা বলেই শান্ত থাকে। কিন্তু যোগ্য জবাব দেয় তার বাকি দুই বোন দ্যুতি আর বনি। আর এটি তারা দুজন একদম ঠিক কাজ করেছে।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।