বাংলা সিরিয়াল

রোমান্টিসিজম থেকে আস্তে আস্তে মাটিতে পা দিচ্ছে এক্কা দোক্কার অঙ্কিতা চরিত্র! নিজের বিয়ে নয় বাবার হারানো সম্মান ফেরানোই তার লক্ষ্য! এই প্রথম বিয়ের মন্ডপে দাঁড়িয়ে শ্রেয়ানকে বিয়ে করতে অস্বীকার করল অঙ্কিতা! নেটিজেনরা মুগ্ধ হয়ে যাচ্ছেন লীনা গাঙ্গুলির হাতে চরিত্রের বিবর্তন হতে দেখে!

স্টার জলসার জনপ্রিয় ধারাবাহিক এক্কা দোক্কা-তে দেখা যাচ্ছে যে,রাধিকা আর অঙ্কিতার বাবা কুশলের নামে একটি মিথ্যা আরোপ আনা হয়েছে। তাকে কিডনি পাচারের ষড়যন্ত্রে ফাঁসানো হচ্ছে। প্রিয় কুশল স্যারের নামে এই মিথ্যা আরোপ আসায় ব্যক্তিগত ভেদাভেদ ভুলে পোখরাজ রাধিকার পাশে গিয়ে দাঁড়িয়েছে। অন্যদিকে কুশলের বড় মেয়ে অঙ্কিতার চরিত্রেও বিবর্তন লক্ষ্য করা যাচ্ছে।

এক্কা দোক্কায় দর্শকদের অনেক অভিযোগ ছিল অঙ্কিতা চরিত্রটি নিয়ে। কারণ এই চরিত্রটি বরাবর নিজের ক্যারিয়ারের দিকে ফোকাস দেওয়ার বদলে বিয়ে নিয়ে‌ই যেন মত্ত ছিল। কিন্তু ধারাবাহিকে এই প্রথম দেখা যাচ্ছে অঙ্কিতার চোখ খুলছে। সে তার নিজের জীবন নিজের বিয়ে, নিজের জগতের থেকে বেরিয়ে এসে শ্রেয়ানের কথার প্রতিবাদ করছে। একজন নেটিজেন সোশ্যাল মিডিয়ায় এই প্রসঙ্গে লিখেছেন “অঙ্কিতা আজ শ্রেয়ানের অন্যায় কথার প্রতিবাদ করলো..

আমার বাপি এত বড় বিপদে পড়েছে আর আমি সেই নিয়ে কোনো কথা বলবো না? আমি তার মেয়ে..কি ভেবেছো তুমি আমাকে? আমি কি তোমার হাতের পুতুল, যখন তুমি আমাকে বলবে কথা বলো বলব, আর যখন বলবে বলো না তখন বলব না?অঙ্কিতার চরিত্র টা এখন বেশ ভালো লাগছে”

এই ধারাবাহিকে দেখানো হয়েছিল অঙ্কিতার বাবার ওপর মিথ্যে কিডনি পাচারের আরোপ আসায় শ্রেয়ান প্রথমে জানায়, অঙ্কিতাকে বিয়ে করতে তার আপত্তি আছে, এরপর ধারাবাহিকে রাধিকা অঙ্কিতাকে বলে যে, তুই ভেবে দেখ দিদি তুই হাতে পায়ে ধরে শ্রেয়ানদাকে এই বিয়ের জন্য রাজি করবি না এই বিয়ে থেকে সরে আসবি?

শুধু তাই নয়,এই ধারাবাহিকে আরও দেখা যায় যে, অঙ্কিতা নিজে নিজের সিদ্ধান্ত জানাচ্ছে। সে বলছে যে সে এখন সবার প্রথমে নিজের বাপির পাশে অর্থাৎ নিজের বাবার পাশে দাঁড়াবে আর সে একই সাথে সিদ্ধান্ত নিয়েছে যে শ্রেয়ান কে সে নিজে থেকেই বিয়ে করবে না। তার চরিত্রের এই বলিষ্ঠতায় সকলে মুগ্ধ হয়ে গেছে।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।