বাংলা সিরিয়াল

সামনেই আসতে চলেছে এই সপ্তাহের টিআরপি লিস্ট, আর তার আগেই গাঁটছড়ার জমে উঠেছে জমজমাটি পর্বে! ফাঁস হলো অয়নার ষড়যন্ত্র, হবু পুত্রবধূকে সপাটে চর কষালো কুনালের মা

জমে উঠেছে গাঁটছড়ার পর্ব। দীর্ঘদিনের দর্শকের ধৈর্যের অবসান ঘটিয়ে ষড়যন্ত্রের অবসান ঘটতে চলেছে ঋদ্ধি খড়ির জীবনের। টানা দীর্ঘদিন ধরে ঋদ্ধি খড়ি এবং তাদের সিংহ রায় জুয়েলার্সের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছিল দত্ত জুয়েলার্স আর তার মেয়ে অয়না দত্ত। আয়না তাড়াহুড়ো দেখাচ্ছিলো রেজিস্ট্রি পেপারে সই করার জন্য। কিন্তু সেটাও যে একটা চাল সেটা প্রমাণ করলো ঋদ্ধি। রেজিস্ট্রি পেপার এর নাম করে সেখানে ছিল পুরো সিংহরায় জুয়েলার্স এর প্রপার্টি ট্রান্সফারের কাগজ। ঋদ্ধি সম্পূর্ণটা আগেই বুঝতে পেরেছিল কারণ সে আর খড়ি জানতো যে তাদের পেছনে দত্ত জুয়েলার্স এর সাথে হাত মিলিয়ে রাহুল কিয়ারা আর অয়না নিজেও তাদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে।

কিন্তু এত সবকিছু সামনে আসার পরেও অয়না সবটাকেই নাকোচ করে দেয়। সে দাবি করতে থাকে সিংহ রায়দের প্রপার্টি নিয়ে তার কোন লোভ নেই। সে শুধু কুনালকে বিয়ে করতে চায় কারণ সে কুনালকে ভালোবাসে। সে খুব ঋদ্ধি করে বাড়ির সবার সই করিয়ে নিচ্ছিল। কিন্তু অজানা সেই কাগজ ছিঁড়ে ফেলে বারবার প্রমাণ করতে চায় সে এগুলো কিছু করতে চায় না। আর কথা ঘুরিয়ে দেয় আর বলে যে ঋদ্ধি আর খড়ির তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে। হাজারো কেঁদে কেটে কেটে সে মন গলাতে চায় সকলের। কিন্তু বাড়ির কেউ আর বিশ্বাস করে না তাকে।

যখন সে দেখে যে কেউই আর তাকে বিশ্বাস করছে না তখন সে কুনালকে ইমোশনাল ব্ল্যাকমেইল করতে থাকে যে সে যেন তাকে সিঁদুর পরিয়ে দেয়। এমনকি জোর করে কুনালের হাত থেকে সিঁদুর পড়েও নিতে যায়। কিন্তু সেই মুহূর্তেই কুনালকে এসে আটকে দেয় মধুজা। সে অয়নার ষড়যন্ত্র সবটা বাড়ির সকলের সামনে খুলে বলে। আর ঠাসিয়ে একটা চড় মারে হয় অয়নাকে। আর তারপরেই প্রশংসা করতে থাকে বনির। বনি যে নিজের প্রাণের বাজি রেখে কুনালের মায়ের প্রাণ বাঁচিয়েছে সেটাও সে বলে সকলের সামনে। যখন দেখলো যে সব সত্যি চলে এসেছে সকলের সামনে তখন মাথায় বাজ পড়ে তার।

অয়না এরপর বুঝতে পেরে যায় যে তার সমস্ত ষড়যন্ত্র চলে এসেছে সকলের সামনে। কুনালের মা নিজে মুখেই সব ঘটনা বাড়ির সকলের সামনে বলেন। এরপরও সে খেলা ঘুরিয়ে দিতে চেষ্টা করে আর বলে যে প্রমাণ দিতে যে অয়না কুনালের মায়ের পিছনে ষড়যন্ত্র করেছিল। তখন খড়ি একটি ভিডিও ক্লিপ দেখায় যেখানে সমস্ত ঘটনা দেখা যাচ্ছে। আর সেই ভিডিও থেকেই প্রমাণিত হয় যে কুনালের মা সব ঘটনা সত্যি বলছে।

সবটা প্রমাণ হয়ে যাবার পর জেরার মুখে পড়তে হয় অয়নাকে। আর সেই জেরার মুখে পড়ে অয়না বলে দেয় যে রাহুল আর কিয়ারা দত্ত জুয়েলার্স আর অয়নাকে মদত যুগিয়েছে এই সমস্ত ষড়যন্ত্র করতে। এদিকে কিয়ারা যখন দেখে যে সে ফেঁসে গেছে তখন সে তার সমস্ত দোষ চাপিয়ে দেয় ব্রো এর ওপর। বলে যে রাহুলের কথা মতোই সে সমস্ত কিছু করেছিল। এবারে শুধু এটাই দেখার যে সমস্ত কিছু ফাঁস হয়ে যাওয়ার পর রাহুল আর কিয়ারা ঠিক কি শাস্তি পায়। আর বনি কুনাল এক হতে পারে কিনা।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।