বাংলা সিরিয়াল

“খড়ির হাতের টানে দেবীপক্ষের আগমন ঘটবে দেবীর, খড়ি যে আর্টিস্ট সে কথা দর্শকের মনে বসিয়ে দিচ্ছে এই ধারাবাহিক” – গাঁটছড়া ধারাবাহিকের প্রশংসায় পঞ্চমুখ নেটিজেনরা

বর্তমানে ধারাবাহিক জগতের অন্যতম জনপ্রিয় একটি ধারাবাহিক হলো গাঁটছড়া। স্টার জলসার অন্যতম জনপ্রিয় এই ধারাবাহিক বেশ ভালই বড় টুইস্ট এনে ছিল এই সপ্তাহে। কিছুদিন আগে এই ধারাবাহিকে দেখানো হয়েছে যে সিংহ রায় বাড়ির যতজন শত্রু ছিল তাঁদের সবার পর্দা ফাঁস হয়ে গিয়েছে। দত্ত জুয়েলার্স সিংহ রায় জুয়েলার্স এর সাথে শত্রুতা করে নানান রকম ফন্দি কষে ছিল।

আর তাঁদের সাথে হাত মিলিয়ে নিজের পরিবারের লোকের সাথে শত্রুতা করছিল রাহুল এবং কিয়ারা। কিন্তু সেই সব ফাঁস হয়ে গিয়েছে। শেষ পর্যন্ত কিয়ারা নিজের সব দোষ চাপিয়ে দিয়েছে রাহুলের কাঁধে। আর যার কারণে রাহুল এখন জেলে। কিন্তু রাহুল অনেক বার করে ঋদ্ধির কাছে ক্ষমা চায়। কিন্তু তারপরেও ঋদ্ধি ক্ষমা করেনি রাহুলকে। ঋদ্ধি বলে সিংহ রায় বাড়ির ছেলেরা মেয়েদের কে কখনো অসম্মান করে না। আর যদি অসম্মান করা হয় তাহলে তাঁদেরক্ষমাও করা হয় না।

রাহুল উল্টোপাল্টা কাজকর্ম করে বেড়ালেও দ্যুতি কিন্তু এখন একেবারে পাল্টে গিয়েছে। দ্যুতি নিজের কাজের নিষ্ঠা এবং ভালোবাসা দিয়ে নিজের ক্যারিয়ার তৈরি করতে চাইছে। দ্যুতি সিংহরায় বাড়ির সকলকেই আপন করে নিয়েছে। আর সেই বাড়ির লোকেরাও দ্যুতিকেও এখন ভালোবেসে আপন করে নিয়েছে। কিন্তু এরপরেই ধারাবাহিকের প্রমোতে দেখানো হলো যে খড়ি তার জেঠুর নামে মহালয়ার দিন তর্পণ করছে। সেই দর্পণ করতে করতেই খড়ি বলে যে আজ পাঁচ বছর হল ভট্টাচার্য বাড়িতে দুর্গাপূজা বন্ধ। এটা শুনে রীতিমতো অবাক হয়ে যায় ঋদ্ধি। জিজ্ঞাসা করে, “আপনাদের বাড়িতে দুর্গাপূজা হত?”

তখন সে উত্তর দেয় যে হ্যাঁ হতো। জেঠু মারা যাবার পর আর এই পুজো করা হয়নি। এরপরেই দেখা যায় যে ঋদ্ধি খড়ি কে চোখ বন্ধ করে ভট্টাচার্য বাড়ির দালানে নিয়ে আসছে। আর সেখানে রাখা আছে দেবী দুর্গার আটচালা। কিন্তু উপস্থিত নেই দেবী মূর্তি। তার কারণ হিসেবে দেখা যায় যে ঋদ্ধি চায় ঘড়ির তুলির টানে ভট্টাচার্য বাড়িতে ফিরে আসুক দেবী মূর্তি। এরপরেই খড়ি রং তুলি নিয়ে বসে পড়ে তার তুলির টানে প্রতিমা তৈরি করতে। এরপরেই খড়ি নিজের রং তুলি দিয়ে ফুটিয়ে তোলে দেবী মূর্তিকে।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।