বাংলা সিরিয়াল

কোনরকম এক্সপ্রেশনই নেই জগদ্ধাত্রীর! ধারাবাহিকে তার এক্টিংয়ের এত জায়গা রয়েছে তবু ফুটিয়ে তুলতে পারছে না! জগদ্ধাত্রীর অভিনয় দেখে হতাশ দর্শকরা!

কোন ধারাবাহিকের নায়িকা যদি ভালো অভিনয় না করতে পারে তা নিয়ে যথেষ্ট পরিমাণে সমালোচনা হয়। কারণ একটি ধারাবাহিকের লিড চরিত্রের ওপর‌ই সেই ধারাবাহিকটি দাঁড়িয়ে থাকে। তাই ধারাবাহিকের অন্যান্য চরিত্র যেমন সাইড রোল বা অন্যান্য কোন কাস্টিং খারাপ হলেও বা অভিনয়ে দুর্বল হলেও মানুষ অতটা পাত্তা দেন না যতটা পাত্তা দেওয়া হয় নায়ক নায়িকার ক্ষেত্রে। কোন ধারাবাহিকের নায়ক-নায়িকা যদি অভিনয় খারাপ হয় তাহলে সেই ধারাবাহিকটি ভীষণ রকম ট্রোল হয়।

জি বাংলার সদ্য শুরু হ‌ওয়া ধারাবাহিক জগদ্ধাত্রী। এই ধারাবাহিকের মুখ্য চরিত্র অর্থাৎ নাম ভূমিকায় অভিনয় করছেন অঙ্কিতা মল্লিক। ধারাবাহিকে তার চরিত্রটি দ্বৈত ভূমিকা পালন করে। বাড়িতে সে শান্ত সৃষ্ট, হাবাগোবা মেয়ে, বাড়ির বাইরে বেরোলে তার কাজের জায়গায় সে হয়ে যায় জ্যাশ সান্যাল, তখন সে স্পেশাল ক্রাইম ব্রাঞ্চ অফিসার, একা হাতে সকল দুষ্কৃতীদের দমন করে দুর্দান্ত ফাইট করে।

এই জগদ্ধাত্রীর মা অনেক ছোটবেলায় মারা যায়। বাবা দ্বিতীয় বিয়ে করে। দেখা যায় তার সৎ মা থেকে শুরু করে পরিবারের প্রত্যেকে এমনকি তার বাবা পর্যন্ত তার সাথে খারাপ ব্যবহার করে। একমাত্র তার ঠাকুমাই যা তাকে ভালোবাসে কিন্তু এত কিছুর পরেও জগদ্ধাত্রী কাউকে কিচ্ছু বলে না চুপচাপ সহ্য করে অপমান। ধারাবাহিকে আরো দেখানো হচ্ছে যে, জগদ্ধাত্রী উৎসব বলে একটি ছেলেকে ভালবাসতো সে তার বয়ফ্রেন্ড ছিলো, এই ছেলেটি জগদ্ধাত্রীর সাথে বিয়ে ভেঙে অন্য একজনের সাথে বিয়ে করতে চাইছে। কিন্তু জগদ্ধাত্রী এখনো তাকে ভীষণ ভালোবাসে।

কিছু গুণ্ডা উৎসবকে মারলে জগদ্ধাত্রী তাদের সাথে লড়াই করতে ছুটে, এই সবের ফাঁকে পালিয়ে যায় মেনন। অন্য দিকে স্বয়ম্ভূর কাঁধে মাথা রেখে জগদ্ধাত্রী বলে যে, সে উৎসবকে খুবই ভালোবাসে।-অথচ এই এপিসোড নিয়ে রীতিমতো ট্রোলড হয়েছে জগদ্ধাত্রী। একদল মানুষ বলছেন, এত সুন্দর টান টান পর্ব কিন্তু মেয়েটার কোন সেভাবে এক্সপ্রেশন নেই ‌! এক্টিংয়ের এত জায়গা আছে তবুও ফুটিয়ে তুলতে পারছে না।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।