বাংলা সিরিয়াল

ওমি হল ইতিহাসের প্রথম ভিলেন যার মৃত্যুতে চোখের জল ফেলছে দর্শকরা! খলনায়ক হিসাবে জনের পারফরম্যান্সকে কুর্নিশ জানাচ্ছেন মিঠাই ভক্তরা

বর্তমানকালে জি বাংলার সবচেয়ে জনপ্রিয় সিরিয়াল হল মিঠাই। মিঠাই সিরিয়ালটি ২০২১ সালের ৪ জানুয়ারি শুরু হয়। সুখ দুঃখের মুহূর্তের সাথে একান্নবর্তী পরিবারের গল্প নিয়ে তৈরি হয় এই সিরিয়ালটি। এই সিরিয়ালে মূল চরিত্র মিঠাইয়ে পাঠ করছেন সৌমিতৃষ্ণা কুন্ডু। প্রথম থেকেই এই সিরিয়ালটি দর্শকদের কাছে জনপ্রিয়তা লাভ করে। ৪৬ বার টিআরপি তালিকায় প্রথম স্থান অধিকার করেছে।

মিঠাই সিরিয়ালে খল নায়িকা এর আগে থাকলেও তিনি মিঠাইয়ের সংস্পর্শে এসে ভালো হয়ে উঠেছেন। তবে একমাত্রই এখন খলনায়ক আছে ওমি আগরওয়াল।পিসেমশাই আর আগারওয়ালের ছোট ছেলে হলেন ওমি। ওমি এর আগেও সিদ্ধার্থকে মারার ছক কষে ছিল কিন্তু সিদ্ধার্থ আবার রকস্টার হয়ে মনোহারায় ফিরে এসেছে। বাড়িতে ফিরে সিদ্ধার্থ পিসেমশাই ও তার ছেলে ওমিকে পুলিশের হাতে ধরিয়ে দেন। ওমি অসুস্থতার ভান করে পুলিশের চোখে ধুলো দিয়ে জেল থেকে পালিয়ে যায়।

এবার মোদক পরিবারকে ধুলিস্যাৎ করার জন্য ওমি আগরওয়াল মনোহারাতে টাইম বোম বেঁধে দিয়েছে। সেই টাইম বোমকে নিষ্ক্রিয় করার জন্য রুদ্রের নির্দেশে স্পেশাল পুলিশ অফিসার সুদীপ্ত রায় মনোহরায় প্রবেশ করবেন বলে ঠিক করেছিল বোমটি নিষ্ক্রিয় করার জন্য। কিন্তু পুলিশ বাহিনী মনোহরায় প্রবেশ করার কোনো পথ খুঁজে পায়নি।

তবে মনে হচ্ছে পুলিশ বাহিনী মাইকে করে নির্দেশ দেবেন যে কিভাবে বোমাকে নিষ্ক্রিয় করানো যায়। ওই নির্দেশ মেনে সিদ্ধার্থ আর মিঠাই গোপালের সাহায্য নিয়ে সঠিক তারটা কেটে দিয়ে মনোহরাকে বিপদ থেকে বাঁচাবে। তারপর রাতুল ওমির আইপি এড্রেস খুঁজে পুলিশকে দিয়ে দেবে। পুলিশ এই সূত্র ধরে ওমির ডেরাতে পৌঁছে গিয়ে তাকে গ্রেফতার করতে যাবে। ওমি তখন পালাতে গিয়ে পুলিশের গুলিতে নিহত হয়।

ভিলেন হিসেবে দু-তিন দিনে ওমি আগারওয়াল সেজে জন ভট্টাচার্য দুর্দান্ত অভিনয় করেছে। তবে বাংলা সিরিয়াল ধারাবাহিকের ইতিহাসে এই প্রথমবার খলনায়কের মৃত্যুতে দর্শকদের মন খারাপ হয়েছে। অনেকেই বলছেন যে ওমিকে ধরে জেলে ভড়তে পারতেন, মারতে পারতেন কিন্তু একেবারে মেরে ফেললেন এটা ঠিক হলো না। কারণ মিঠাই এ আর কোনো খলনায়ক থাকলো না।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।