বাংলা সিরিয়াল

ঋদ্ধি আর খড়ির প্রেমের সম্পর্ক দিন দিন পৌঁছচ্ছে আরো মাখো মাখো পর্যায়ে! এবারে গাঁটছড়ায় ঋদ্ধি ও খড়ির চুম্বনের দৃশ্য! নতুন পর্বে আসতে চলেছে দর্শকদের জন্য আরো নতুন চমক

বর্তমানে স্টার জলসা জনপ্রিয় ধারাবাহিক গাঁটছড়া। একের পর এক টুইস্ট আসছে এই ধারাবাহিকে। দত্ত জুয়েলার্স এর ষড়যন্ত্রে ফাঁদে পরে গিয়েছিল সিংহরাই জুয়েলার্স। শেষ মুহূর্তেও সিংহরায় জুয়েলার্সের রাতারাতি বদলানোর লেটেস্ট ডিজাইনের খবর পৌঁছে গিয়েছিল দত্ত জুয়েলার্স এর কাছে। কিন্তু এটা বিশ্বাস করতে পারছিল না ঋদ্ধি। শেষে খড়ি জানায় যে সত্যিই এই ঘটনাটি ঘটেছে। কিন্তু তারপরেও খড়ির অসাধারণ বুদ্ধি বাজিমাত করে দেয় শেষ মুহূর্তে।

খড়ি বাড়ির সকল মেয়ে বউদের দিয়ে শোতে হাঁটার অসম্ভব কাজ সম্ভব করিয়েছে। ঠাম্মি, ঋদ্ধির মা কাকিমা, বড় পি মনি, ছোট পি মনি, দ্যুতি। বনি সকলে মিলে অতীত ঐতিহ্যের সাথে নতুন ঐতিহ্যের মেলবন্ধনের অসাধারণ প্রেসেন্টেশন করেছে। নিজের নতুনত্ব ভাবনাকে মঞ্চে অসাধারণ ভাবে প্রেজেন্ট করেছে সে। শেষ মুহূর্তেও পরিবারের সকলে মিলে খেটে জয়ের মুকুট ছিনিয়ে নেয়। শেষ পর্যন্ত জয়ের মুকুটের সিংহরায় জুয়েলার্সের মাথাতেই। এমনকি শোস টপার এবং সিংহরায় জুয়েলার্স এর ফেস হয় দ্যুতি। কিন্তু তুই নিজেই সেই মুকুট তুলে দেয় খড়ির মাথায়।

মঞ্চেই দত্ত জুয়েলার্সের অধিকর্তা অর্থাৎ অয়নার বাবা মিস্টার দত্ত রেগে যান। আর দোষারোপ করতে থাকে জাজেজদের। কিন্তু খড়ি দত্ত জুয়েলার্স এর সমস্ত ষড়যন্ত্রের ফিরিস্তি দেয়। আর তখনই পুলিশ গ্রেপ্তার করে মিস্টার দত্তকে। কিন্তু এর পরে নিজের স্ত্রীর গালে চুমু এঁকে দেন ঋদ্ধিমান সিংহ রায়। ঘড়ি অবাক হলেও লজ্জায় লাল হয়ে ওঠে সে। কিন্তু এবার শুধু এটুকুই দেখার যে মিস্টার দত্ত জেল থেকে বেরিয়ে আবার কি নতুন ফন্দি আটে সিংহ রায়দের জন্য।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।