বাংলা সিরিয়াল

সহচরীর গোল্ড মেডেলিস্ট হওয়ার গল্প না দেখিয়েই শেষ করে দেওয়া হলো “আয় তবে সহচরী”! সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্ষোভে ফুঁসছেন নেটিজেনদের একাংশ

স্টার জলসার জনপ্রিয় ধারাবাহিক গুলির মধ্যে একটি হলো “আয় তবে সহচরী”। ধারাবাহিকের নাম যেই চরিত্রের নামে সেই সহচরীর চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন অভিনেত্রী কনীনিকা। এক মধ্য বয়স্কা মহিলার সংসারের দায়িত্ব সামলে পড়াশোনা করে গোল্ড মেডেলিস্ট হওয়ার স্বপ্ন পূরণ নিয়ে শুরু হয় এই ধারাবাহিক। এ ধারাবাহিক নিয়ে দর্শকদের বেশ ভালই আশা ছিল যে একটি সোশ্যাল মেসেজ দিতে পারবে এই ধারাবাহিকটি। কিন্তু সেখানে সহচরীর স্বামী সমরেশের হাঁটুর বয়সী মেয়ের সাথে পরকীয়া, দেবীনার অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার ঘটনা সবকিছু কেমন যেন ধারাবাহিকের মূল স্রোত থেকে সরে আসছিল।

তবে মূল স্রোতে না ফিরেই তার আগেই বন্ধ হয়ে গেল “আয় তবে সহচরী”। কিছুদিন আগে থেকেই সহচরী অর্থাৎ অভিনেত্রী কনীনিকা অসুস্থ ছিলেন। চিকিৎসার জন্য বাইরে যেতে হয়েছিল তাঁকে। কিন্তু দর্শকদের আশা ছিল যে তিনি ফিরলে হয়তো তাঁর গল্প দেখানো হবে। কিন্তু সেটা হয়নি। তাঁর গল্প না দেখিয়েই শেষ হলো এই ধারাবাহিক। টিআরপি ভাল থাকা সত্ত্বেও হঠাৎ করেই শেষ করে দেওয়া কেন হলো এই ধারাবাহিককে? প্রশ্ন নেট দুনিয়ার। শুটিংয়ের শেষ দিনে সবাই মিলে কেক কাটলেও সেখানে উপস্থিত ছিলেন না অভিনেত্রী কনীনিকা। সহচরির গল্প না দেখানোতে সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে ক্ষোভ প্রকাশ করছেন “আয় তবে সহচরী” ধারাবাহিকের ভক্তরা।

যেমন একজন লিখেছেন, “সহচরী কে ছাড়াই সম্পন্ন হলো আয় তবে সহচরী র লাস্ট শুট। যার নামে সিরিয়াল, যাদের সম্পর্ক নিয়ে সিরিয়াল সেটাই আর দেখানো হলো না। যখন ATS এর টাইটেল সং গাইতে গাইতে ওরা কেক কাটছিল,ভীষণ মনে পড়ছিল কনি ম্যাম এর কথা। সবচেয়ে খারাপ লাগছে বরফি কে দেখে, যে মেয়ে লাইভ হলেই ছুটে চলে আসতো,একাই লাইভ মাতিয়ে নিত, সেই মেয়েটা গোটা লাইভ এ একটা কথা বলেনি, হাসেওনি। কাস্ট থেকে ক্রিউ সবার চোখে জল, ইমোশন সামলে সবাই কেক কাটলো, বোঝাই গেলো ওরা এবার কাঁদবে সবাই। ভালো থাকুক ওরা, আবার নতুন উদ্যমে নতুন চরিত্রে ফিরে এসে আমাদের মনোরঞ্জন করুক। আর কিছু বলবার নেই আজ…”

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।