বাংলা সিরিয়াল

লক্ষ্মী কাকিমা কে হারাতে মাধবীলতার ক্লাইম্যাক্স হাজির! সামনে এলো সবুজের পিতৃ পরিচয়, মায়ের হত্যাকারীকে শশুর হিসেবে মানতে নারাজ মাধবী

সম্প্রতি স্টার জলসা ও জি বাংলার মতো বাংলার বিনোদন মাধ্যমের অন্যতম চ্যানেল গুলিতে উঠেছে নতুন ধারাবাহিকের ঝড়। একের পর এক পুরোনো ধারাবাহিকের স্লট পরিবর্তন করা হচ্ছে আর নয়তো বন্ধ করে দেওয়া হচ্ছে সম্পূর্ণ ঘটনাটি না দেখিয়েই। যার কারণে আনা হচ্ছে ঝাঁকে ঝাঁকে নতুন ধারাবাহিক। কিছুদিন আগেও শুরু হয়েছে এরকম এক ঝাঁক নতুন ধারাবাহিক। যার মধ্যে অন্যতম প্রধান একটি ধারাবাহিক হলো স্টার জলসার “মাধবীলতা”। উল্লেখ্য গাছ সংরক্ষণ নিয়ে এর আগে কোন ধারাবাহিক দেখা যায়নি টেলিভিশনের পর্দায়। এরকম একটি টপিক এই প্রথম ছোট পর্দায় ফুটে উঠতে চলেছে। মানুষ মুখিয়ে আছেন ধারাবাহিকের গল্প দেখার জন্য। যার কারণে শুরু হবার পরপরই ধারাবাহিকের জনপ্রিয়তা বেশ ভালই ছড়িয়েছে দর্শক মহলে।

ধারাবাহিক শুরুই হয়েছিল মাধবীলতা নামের একটি মেয়ের গল্পকে কেন্দ্র করে। জংলাহাটা নামের এক গ্রামের মেয়ে মাধবী বন সংরক্ষণের দায়িত্ব সে নিয়েছে নিজের কাঁধে। কিন্তু এই মাধবীলতার পরিবারের সাথে অনেক পুরনো শত্রুতা আছে একটি বড়লোক পরিবারের। আর দেখা গেল ঘুরিয়ে ফিরিয়ে মাধবী সেই বড়লোক পরিবারেরই বউ হয়ে এসেছে। কিন্তু মাধবী জানতো না যে সে বিয়ে হয়ে কোন বাড়িতে যেতে চলেছে। সবুজ জংলাহাটায় গিয়ে গ্রামের মেয়ে মাধবীকে ভালোবেসে ফেলে। আর তড়িঘড়ি বিয়ে করে নিয়ে আসে মাধবীলতা কে। সবুজ বা মাধবী কেউই জানে না তাদের পারিবারিক শত্রুতার কথা।

এই মুহূর্তেই চলে এসেছে ধারাবাহিকের ক্লাইম্যাক্স। সত্যিটা চলে এসেছে মাধবীলতার সামনে। সবুজের পিতৃপরিচয় জেনে রেগে আগুন হয়ে যায় মাধবী। তার শশুর তার মায়ের হত্যাকারী এটা সে কিভাবে মেনে নেবে? যদিও এখনো কেউ জানে না এই চরম সত্যের কথা। পুষ্পরঞ্জন নিজেও জানতেন না যে তিনি যে মহিলাকে খুন করেছিলেন তার মেয়ে মাধবী।

সকলের সামনে পুষ্পরঞ্জন নিজের পরিচয় দেয় যে সেই সবুজের বাবা। এটা শুনে মাধবী রেগে আগুন হয়ে যায়। কারণ ততক্ষণ এসে বুঝে গেছে যে তার মায়ের হত্যাকারী এখন তার শশুর। সবুজের উপরে রাগ উঠে থাকে তার। আসলে একে তো তার মার হত্যাকারী। আবার মাধবীর দিদি পুষ্পরঞ্জনকে দেখে নিয়েছিল তাদের মাকে হত্যা করতে। তখন থেকেই মাধবীর দিদির কথা বলা বন্ধ হয়ে যায়। তার ওপরে জঙ্গলাহাটার গাছ কেটে সাফ করে অসাধু ব্যবসায় রয়েছেন এই পুষ্পরঞ্জন। মাধবী একেবারেই যায় না যে জংলাহাটা ফাঁকা হয়ে যাক। সেই নিয়েই মাধবীলতার পুষ্পরঞ্জনের মধ্যে লড়াই।

বর্তমানে দুই শত্রু পক্ষ মুখোমুখি। সত্যের মুখোমুখি মাধবী। ময়দানে শত্রুপক্ষের সঙ্গে একা লড়াইয়ে সে। অন্যদিকে সবুজ বৌভাতের ভাত কাপড় মাধবীকে দিতে গেলে সে প্রচন্ড রেগে যায়। না জানিয়ে তাকে বিয়ে করার এই নিয়ে মাধবী অভিযোগ করো। এমনকি স্বামী কিসের ঘৃণা করে এ কথাও বলে সকলের সামনে। এবারে শুধু দেখার যে আরো কি কি টুইস্ট বাকি আছে বর্তমানে এই পর্বগুলোর জন্য।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।