বাংলা সিরিয়াল

“এক্সপ্রেশন দেখে মনে হচ্ছে কেউ ডেয়ারি মিলকে দেবে বলেছে আর সেই আনন্দে নাচছে” -জি বাংলার “সিংহবাহিনী ত্রিনয়নী”তে মহা সরস্বতী রূপে উর্মিকে দেখে খিল্লি করেছেন দর্শক

একেবারে দোলগোড়ায় দাঁড়িয়ে অপেক্ষার। মাত্র কয়েকটা দিন আর তারপরেই সেই পুন্য তিথি। মোটামুটি আমরা সকলেই জানি মহালয়ার দেবী বন্দনা হয়ে যাওয়া মানে, পূজোর বাদ্যি দিয়ে বেজে গেছে। দেবীর আগমনের সূচনার সূত্রপাত হয়ে গিয়েছে। মহালয়া তিন ভোর চারটের সময় বীরেন্দ্রকৃষ্ণ কণ্ঠে চন্ডীপাঠ যেন এক আলাদাই শিহরণ সৃষ্টি করে। আর তারপরে ছোট পর্দার প্রতিটি প্রাইভেট চ্যানেলের বিশেষ শো মহিষাসুরমর্দিনী। এই প্রভাতী অনুষ্ঠানের সূচনা ছোট পর্দায় সর্বপ্রথম করে দূরদর্শন। আর সেই ধারা এখনো বজায় রেখেছে প্রাইভেট চ্যানেলগুলি। প্রাইভেট চ্যানেল গুলি মহালয়ার জন্য বিশেষ অনুষ্ঠান তৈরি করে আর সেখানে সেই চ্যানেলের বিভিন্ন অভিনেত্রীদের দিয়েই দেবীর নটি রূপ দেখায়।

বর্তমানে বাংলা বিনোদন মাধ্যমের প্রাইভেট চ্যানেলগুলির মধ্যে অন্যতম জনপ্রিয় চ্যানেল হল স্টার জলসা আর জি বাংলা। প্রত্যেক বছর এই চ্যানেলগুলি মহালয়ার পুন্য তিথিতে হাজির হয় তাদের চ্যানেলের অনুষ্ঠান নিয়ে। যেমন এবছরের জি বাংলার বিশেষ অনুষ্ঠানের নাম “সিংঘবাহিনী ত্রিনয়ন”। এই অনুষ্ঠানে সিংহবাহিনীর ত্রিনয়নীতে যে চরিত্রে অভিনেত্রী অভিনয় করবেন তার প্রমো অনেক আগেই চলে এসেছিল। এবার ধীরে ধীরে সামনে আসছে আরো অন্যান্য অভিনেত্রীদের দেবীর অন্যান্য রূপের প্রমো। জি বাংলার প্রত্যেক জন অভিনেত্রী তুলে ধরেছেন দেবীর এক একটি রূপকে। সেখানেই মহা সরস্বতী রূপে দেখতে পাওয়া গেল উর্মিকে।

কিছুক্ষণ আগেই জি বাংলা তরফ থেকে একটি প্রমো ভিডিও তাদের অফিসিয়াল একাউন্টে ছাড়া হয়েছে। যেখানে দেখতে পাওয়া যাচ্ছে উর্মি অর্থাৎ অভিনেত্রী অন্বেষা মহা সরস্বতীর রূপে এই বিশেষ শোতে থাকবেন। সম্পূর্ণ সাদা শাড়িতে দেবী সরস্বতী রূপ ফুটে উঠলেও তার নাচ এবং মুখভঙ্গিমা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় হয়েছে ভালো রকম সমালোচনা। একজন লিখেছেন, “এক্সপ্রেশন দেখে মনে হচ্ছে কেউ ডেইরি মিল্ক দেবে বলেছে আর সেই আনন্দে নাচছে”। আরেকজন বলেছেন, “ফালতু একদম ফালতু, এটা কি ডান্স বাংলা ডান্সের অডিশন হচ্ছে?”। আরেকজন লেখেন, “যে মহালয়ায় বীরেন্দ্রকৃষ্ণ ভদ্রের কথাই খুজেঁ পাওয়া যায় না সেটা আবার মহালয়া নাকি???
তির থেকে ওই ভোর ৪ টের রেডিও তে অনেক ভালো শুনতে পাবো,,,, আপনারা নেচে যান”। আরেকজন নেটিজেন বলেছেন, “খালি উল্টোপাল্টা নেচে যাচ্ছে অসহ্য একদম”। এরকমই আরো বহু পাঠকের সম্মুখীন হয়েছে অভিনেত্রীকে।

প্রসঙ্গত অভিনেত্রী অন্বেষা জি বাংলার “এই পথ যদি না শেষ হয়” ধারাবাহিকে উর্মীর চরিত্রে দেখতে পাওয়া যাচ্ছে। মুখ্য চরিত্রের অভিনয়ের মাধ্যমে খুব বেশি সংখ্যার মানুষের মনের কাছাকাছি হয়ে গিয়েছে তিনি। দর্শক যথেষ্ট পছন্দ করছেন অন্বেষার অভিনয়। নিজের দক্ষতার মাধ্যমেই দর্শকের ভালোবাসা অর্জন করেছেন অভিনেত্রী।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।