বাংলা সিরিয়াল

“দেবচন্দ্রিমা পরিশ্রমী, নিজের দক্ষতায় অভিনয় করে নিজের যোগ্যতায় নিজের সব পূরণ করেন, বাবার কাছ থেকে দামি উপহার নিতে হয় না” – মাত্র ২২ বছর বয়সেই নিজের টাকায় ফ্ল্যাট এবার অ্যাপেল বছর কিনে ফেললেন অভিনেত্রী দেবচন্দ্রিমা! এসব দেখেই মিঠাইকে খোঁচা দিলেন দেবচন্দ্রিমা ভক্তরা

প্রত্যেকটি পরিবারের ছেলেমেয়েদের মধ্যে নিজেদের স্বপ্ন থাকা উচিত যে নিজের যোগ্যতায় বা নিজের দক্ষতাতেই কিছু করে দেখাবেন তারা। সেটা ছেলে হোক কিংবা মেয়ে। নিজের শখ পূরণ বাবার কাছ থেকে নয় নিজের যোগ্যতাই করলে তার আনন্দ অনেকাংশে বেড়ে যায়। সেটা নিজের জন্য সামান্য একটা জামা কেনা হোক কিংবা নিজের প্রয়োজনের জিনিস অথবা বাড়ি গাড়ি ফ্ল্যাট। যাই হোক না কেন পরিবারের জন্য কিছু করা আর নিজের সব পূরণ করা এই চাহিদা তো সবার মধ্যেই থাকে। নিজের পরিশ্রমে নিজের দক্ষতায় নিজের সামর্থ্যে নিজের জন্য বা পরিবারের জন্য যতটুকু করা যায় তার মত আনন্দ তার মত অমূল্য আর কিছু হয় না।

আজকাল সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে আমরা বড় পর্দা থেকে ছোট পর্দা সব ক্ষেত্রের অভিনেতা-অভিনেত্রীদের ব্যক্তিগত জীবন সম্পর্কে জানতে পারি। তাঁরা যখন নিজেদের জন্য বা পরিবারের জন্য নিজের দক্ষতায় নিজের সমর্থ কিছু করেন আর সেগুলিকে সোশ্যাল মিডিয়ায় তুলে ধরেন তখন তা সাধারণ মানুষের জন্য একটি উদাহরণ হয়ে ওঠে। মানুষকে ইন্সপায়ার করেন তাঁরা। বিশেষত ছোট পর্দার কলাকুশলীরা মানুষের খুবই কাছের হন। তাঁদের মধ্যে এমন অনেক অভিনেতা অভিনেত্রী আছেন যাঁরা খুব অল্প বয়সেই ছোট পর্দায় যথেষ্ট সাফল্য অর্জন করে ফেলেছেন। নিজের দক্ষতায় নিজের পরিশ্রমে নিজের সামর্থে অ্যাপেলের ফোন থেকে অ্যাপেলের ঘড়ি এমন কি নিজেদের জন্য বাড়ি, গাড়ি ও কিনছেন। আবার কেউ কেউ বাড়ি, গাড়ি উপহার দিচ্ছেন তাঁর বাবা মাকে। এরকমই একজন উদাহরণযোগ্য ছোট পর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী হলেন দেবচন্দ্রিমা সিংহ রায়।

অভিনেত্রী দেবচন্দ্রিমা ছোট পর্দায় অভিনয়ের সাথে সাথে মডেলিং এর বেশ জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন। ছোটপর্দায় খুব কম ধারাবাহিকেই এখনো পর্যন্ত অভিনয় করতে দেখতে পাওয়া গেছে অভিনেত্রীকে। কিন্তু যে কটি ধারাবাহিকে অভিনয় করেছেন তাতেই মানুষের ভূয়সী প্রশংসায় পেয়েছেন। দর্শকের বেশ পছন্দ হয়েছে তাঁর অভিনয় দক্ষতা। আর এছাড়াও বিভিন্ন ধরনের ফটোশুটেও অংশগ্রহণ করে থাকে অভিনেত্রী। অভিনেত্রী সোশ্যাল মিডিয়া চোখ রাখলে তা খুবই স্পষ্ট হয়ে উঠবে আপনাদের সামনে। ছোট পর্দায় যেমন অভিনেত্রীর বেশ জনপ্রিয়তা রয়েছে ঠিক ততটাই জনপ্রিয়তা রয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতেও। বেশ ভালই বড়সড়ো ফ্যান-বেস রয়েছে দেবচন্দ্রিমার। আর সেখানেই অভিনেত্রী নিজের জীবনের একটা আনন্দের মুহূর্ত শেয়ার করলেন তাঁর অনুরাগীদের উদ্দেশ্যে। আর যা দেখে প্রশংসায় পঞ্চমুখ হলেন সোশ্যাল মিডিয়ার নেটিজেনরা।

আমরা সকলেই জানি অভিনয় জগতে জনপ্রিয়তা অর্জন করলেও এই অভিনেত্রীর বয়স খুবই কম। মাত্র ২২ বছর বয়সেই অভিনেত্রী কিছুদিন আগে নিজের জন্য কলকাতা শহরে একটি ফ্ল্যাট কিনেছিলেন। তখনো মানুষ প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়েছিলেন। এবার অভিনেত্রী নিজের জন্য কিনে ফেললেন একটি স্মার্টওয়াচ। তাও সেটা সোজা কিনেছেন অ্যাপেল ব্র্যান্ডের। এই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট হতেই গর্বে বুক ভরে উঠেছে দেবচন্দ্রিমার ভক্তদের। নিজের পরিশ্রমে, নিজের দক্ষতায়, নিজের সামর্থে আজ এই জায়গায় দাঁড়িয়ে রয়েছেন তিনি। অভিনেত্রীর স্মার্টওয়াচ কেনার সেই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট হতে মুহূর্তের মধ্যে ভাইরাল হয়।

কিন্তু এর পরেই হল মহা বিপত্তি। সোশ্যাল মিডিয়ার একাংশ অভিনেত্রী দেবচন্দ্রিমার সঙ্গে আরেক জনপ্রিয় অভিনেত্রী সৌমিতৃষার তুলনা করতে শুরু করল। কারণ কিছুদিন আগেই মিঠাইকে দেখতে পাওয়া গিয়েছিল যে সে বাবার থেকে লাখ টাকার বেশি দামের একটি ফোন উপহার নিচ্ছেন। কিন্তু অন্যদিকে অভিনেত্রীকে বর্তমানে বাংলা টেলিভিশন জগতের সবথেকে জনপ্রিয় এবং সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক প্রাপ্ত অভিনেত্রীদের মধ্যে ধরা হয়ে থাকে। অর্থাৎ অভিনেত্রী সৌমীর যথেষ্ট সামর্থ্য ছিল নিজের জন্যই সেই ফোন নেওয়ার। কিন্তু অভিনেত্রী তা না করায় সোশ্যাল মিডিয়ার কথা বলতে সুযোগ পেয়ে গেল যে সৌমীর ক্ষমতা থাকা সত্ত্বেও সে বাবার থেকে দামি উপহার নেয়। আর অন্যদিকে দেবচন্দ্রিমা নিজের দক্ষতায় নিজের যোগ্যতায় নিজের পরিশ্রমে নিজের জন্য দামি উপহার নিজেই নিতে পারেন। তাঁকে বাবার কাছ থেকে চাইতে হয় না।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।