বাংলা সিরিয়াল

‘মা ডিভোর্সি হলে মেয়ে তো এরকম হবেই’, ডিভোর্সি মহিলাদের লড়াইকে কুর্নিশ ঐন্দ্রিলার, বিশেষ বার্তা অভিনেত্রীর

সময় এগোচ্ছে। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে বদলে যাচ্ছে মানসিকতাও। তবুও আজকে সমাজে দাঁড়িয়েও এখনো পর্যন্ত ডিভোর্সী মহিলাদের ক্ষেত্রে কোথাও একটা যেন ছুতমার্গীয় মনোভাব রয়ে গেছে। আর সমাজের এই বাস্তব চিত্রটাই যেন আবারও একবার আমজনতার সঙ্গে শেয়ার করে নিলেন অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা শর্মা।

দিনকয়েক আগেই অভিনেত্রী বিশেষ বার্তা দেওয়া কাগজ হাতে নিয়ে একটি ছবি পোস্ট করেছিলেন। সেই কাগজে লেখা ছিল, “মা ডিভোর্সি হলে মেয়ে তো এরকম হবেই”। পাশাপাশি, #OkayNotOkay শব্দবন্ধও ব্যবহার করেছিলেন তিনি। ক্যাপশনে ঐন্দ্রিলা লিখেছিলেন, “মহিলাদের প্রতিদিন অনেক ধরনের কথা শুনতে হয়। এবার সেইসব কথা দূরে সরিয়ে এগিয়ে যাওয়ার সময় এসে গিয়েছে।” আর, এই সবকিছুই যে অভিনেত্রী ‘বোধন’ ওয়েব সিরিজের সমর্থনে পোস্ট করেছিলেন তার বলাই বাহুল্য।

অভিনেত্রী পোস্ট করার পরেই উত্তম রায় নামের এক নেটিজেন কমেন্ট করেন, “তবে কথাটি ১০০ শতাংশ ভুলও নয়।” এই কমেন্টটিকে চিহ্নিত করে ফের ফেসবুকে টেলি অভিনেত্রী একটি পোস্ট করেন। লেখেন, “আজ হইচইয়ের জন্য একটি পোস্ট করেছিলাম। তাতে এই কমেন্টটি পেলাম। সত্যি মানসিকতার বদল না ঘটলে সমাজ বদলাবে না। মায়ের বিসর্জন হতে না হতেই মাকে রাস্তায় টেনে নামানো শুরু।”

তবে নেটিজেনদের বড় অংশ কিন্তু ঐন্দ্রিলার পাশে দাঁড়িয়েছেন। অভিনেত্রীর কথায়, “মা ডিভোর্সি হলে তো বাবাও ডিভোর্সি। সেটা উল্লেখ করা হয় না। মেয়েদের সফট টার্গেট মনে করা হয়।” অনেকে #NotOkay ব্যবহার করেছেন ঐন্দ্রিলার পোস্টে। সব মিলিয়ে, ‘বোধন’ সিরিজে অন্যায়ের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো দুই নারীর লড়াইয়ের কাহিনীকেই সমর্থন করেছেন ঐন্দ্রিলা।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।