বাংলা সিরিয়াল

রঙ্গনের এবার স্পেশাল পুলিসের বেশে মোদক বাড়িতে প্রবেশ! মিঠাই-পিলু মিলে ‘মিলু’, মশারা নেটিজেনদের

একটি চ্যানেলে সম্প্রসারিত হওয়া সিরিয়ালগুলিকে মিলিয়ে তৈরি হয় একটি যৌথ পরিবার। আর ওই পরিবারের মধ্যে রেষারেষি থাকলেও ভাবও কিন্তু কম নেই। প্রায়ই একটি সিরিয়ালে অভিনেতা বা অভিনেত্রী অপর একটি সিরিয়াল কাজ করতে দেখা যায়। কিন্তু সিরিয়াল গুলির মধ্যে ‘মিঠাই’ (Mithai) আর ‘পিলু’র (Pilu) ব‍্যাপারটা আনলাদা। এই সিরিয়াল দুটিতে প্রায়ই অভিনেতা- অভিনেত্রী যায় বা আসে। পিলুর বাবা পণ্ডিত আদিত‍্য নারায়ণ মিঠাইয়ের শ্বশুর মশাই সমরেশ মোদকের চরিত্র পাঠ করছেন। পিলুর ‘দুষ্টু’ দেওর মল্লার হয়েছে মিঠাইয়ের ভাসুর সোম। যদিও এখন এনাকে মোদক পরিবারে আর দেখাই যায় না। মিঠাইয়ে টেসের মা হয়েছেন পিলুতে আহিরের মা।

আবার নিপার স্বামীর রুদ্রকে দেখা যাচ্ছে পিলুতে রঞ্জার সঙ্গে কফি খেতে। আবার রথযাত্রা উপলক্ষে পিলুতে রাজীব ওড়িয়া পুরোহিত হয়ে সুরমণ্ডলে গিয়ে পুজোও করে এসেছেন। এইসব দেখে নেটিজেনরা বলছেন, মিঠাই আর পিলু মিলেমিশে ‘মিলু’ হয়ে গিয়েছে।

এবার পিলু থেকে মিঠাইয়ের আর এক সদস্য যোগদান করছেন তিনি হলেন ‘রঙ্গন’ অর্থাৎ অভিনেতা রুদ্রজিৎ মুখোপাধ‍্যায় (Rudrajit Mukherjee)। মিঠাই এ তিনি স্পেশাল অফিসার সুদীপ্ত রায়ের চরিত্রে পাঠ করবেন।

সম্প্রতি মিঠাইয়ে দেখা যাবে যে মোদক পরিবার খুবই বিপদের মধ্যে রয়েছে। ওমি ষড়যন্ত্র করে টাইম বম্ব ফিট করেছে মনোহরায়। মোদক পরিবারের সকলেই বাড়ির ভেতরে বন্দি। আবার সেই মুহূর্তে সমরেশ অসুস্থ। তাই শ্বশুরবাড়ির পরিবারকে বাঁচানোর জন্য রুদ্রর অনুরোধ করবেন সুদীপ্ত রায় কে মনোহারায় যাওয়ার জন্য। রুদ্র নির্দেশে রক্ষাকর্তা হয়ে মনোহরায় প্রবেশ করবে সুদীপ্ত রায়।

এই সুদীপ্ত রায়ের চরিত্রে পাঠ করতে গিয়ে রুদ্রজিৎ একটি ছবি তুলেছেন। সেই ছবিটি দিয়েছেন তার সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টে। ওই ছবিটিতে প্রশংসা করেছে রুদ্রজিতের স্ত্রী প্রমিতা। তবে রুদ্রজিৎ কে এমনিতেই মিঠাইয়ের দেখা যাবে না কোনো স্পেশাল পর্বের জন্য শুধুমাত্র দেখা যাবে সে কথা কিন্তু খোলাখুলি ভাবে জানাননি রুদ্রজিৎ।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।