বাংলা সিরিয়াল

সাহেবের চিঠি আর গাঁটছড়ার টিআরপি কমবে! খেলনা বাড়ির দুর্ধর্ষ প্রোমো টিআরপি বৃদ্ধিতে সহায়ক হবে! আগাম ঘোষণা করে দিলেন এক নেটিজেন! দেখা যাক ভবিষ্যৎবাণী মিলে কিনা?

জি বাংলার জনপ্রিয় ধারাবাহিক খেলনা বাড়ি। অন্যদিকে সন্ধ্যে সাড়ে ছয়টার স্লটে স্টার জলসার জনপ্রিয় ধারাবাহিক সাহেবের চিঠি। এই দুটি ধারাবাহিকের মধ্যেই বেশ হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হচ্ছে। দুটো ধারাবাহিকের কাহিনী বেশ হাটকে। একটি ধারাবাহিকে দেখানো হচ্ছে যে কীভাবে জন্ম না দিয়েও একজন মেয়ে অপর একজনের মা হয়ে উঠতে পারেন আর অন্য ধারাবাহিকে দেখানো হচ্ছে যে একটা অ্যাক্সিডেন্টে একজন মানুষের জীবন তছনছ হয়ে যাওয়ার মানে এই নয় যে সেই মানুষটি হারিয়ে গেছে, সে আবার ফিরে আসতে পারে এবং নতুন ভাবে নতুন রূপে ফিরে আসতে পারে।

দুটো ধারাবাহিকের স্টোরি ম্যাটেরিয়াল বেশ সুন্দর। গত সপ্তাহে দেখা গেছে একই স্লটে দুটো ধরাবাহিক যৌথ ভাবে স্লট লিডার হয়েছে। সাহেবের চিঠি ধারাবাহিকে দেখা যাচ্ছে সাহেব নকল পা পরে নতুনভাবে ফিরে আসছে চিঠি আর তোতাকে বাঁচাতে এবং আগুনের মধ্যে ঝাঁপিয়ে চিঠি আর তোতাকে বাঁচিয়ে ফিরে আসে সে। অন্যদিকে খেলনা বাড়ি ধারাবাহিকে দেখা যায় যে গুগলির মা হিসেবে হাজির হয়েছে একজন নকল মানুষ। সে যে নকল তা কোর্টে প্রমাণ হয়েছে কিন্তু তারপর গুগলিকে আবার মিতুলের হাতে ফিরিয়ে দেওয়া হবে কিনা তা জাজের হাতে নির্ভর করছে।

এরপর সাম্প্রতিককালের খেলনা বাড়ির প্রমোতে দেখা যায় যে, মিতুল, গুগলি, ইন্দ্র সবাই মিলে হৈচৈ করতে করতে একটা জায়গায় যাচ্ছে সেই সময় ইন্দ্রর মেজ ভাই ডিএনএ টেস্ট করে জানতে পারে যে গুগলি আসলে ইন্দ্রর‌ই মেয়ে সোহাগ। তখন গুগলিকে মেরে ফেলবার জন্য তাদের গাড়ি এক্সিডেন্ট করিয়ে দেয় সে।

এই নিয়ে একজন নেটিজেন সোশ্যাল মিডিয়ায় লিখেছেন,“খেলনা বাড়ি নতুন প্রমো নায়ক নায়িকা আর তাদের মেয়ে হই হুল্লোড় করতে করতে ঘুরতে যাচ্ছে গাড়ি নিয়ে আর ওদিকে খলনায়ক মানে নায়ক এর মেঝ ভাই কুট বুদ্ধি লাগলো আর এদিকে নায়ক নায়িকা গাড়িতে অক্সিডেন্ট লাগলো প্রমো তে বোঝা গেলো তবে এটুকু নিশ্চিত নায়ক/নায়িকা কেও একজন হসপিটাল যাবে , আর এই গুলো দর্শক যা টানে মনে হয় খেলনা বাড়ি 6+পাবে এবার এর এদিকে সাহেবের চিঠি trp কমবে। আর গাঁটছড়া তে আয়না আর কুণাল যখন ওদের কীর্তি দেখাই বিরক্তিকর তখনি ওদের trp কমবে ,জানিনা এই সপ্তাহ গাট আর চিঠি হয়তো trp কমে যাবে,ওদিকে জগদ্ধাত্রী বিয়ের পর্ব আসবে।”

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।