বাংলা সিরিয়াল

ছোট পর্দার খড়ি ঋদ্ধিমান বাবুর থেকেও বেশি ভালোবাসেন অন্য কিছু, এত ভালবাসা যে তাই জীবনের লক্ষ্য হয়ে দাঁড়িয়েছে!

স্টার জলসা জনপ্রিয় ধারাবাহিক “গাঁটছড়া”। শুধু স্টার জলসা চ্যানেল টিকে উল্লেখ করে বলা ভুল হবে গোটা বাংলার সেরা ধারাবাহিকে জায়গা করে নিয়েছে এই গাঁটছড়া। আর এমন একটি ধারাবাহিকের মুখ্য চরিত্র অর্থাৎ খড়ির চরিত্রে অভিনয় করছেন অভিনেত্রী সোলাঙ্কি রায়। বর্তমানের টেলিভিশন জগতে বেশ পরিচিত মুখ তিনি। টেলিভিশনের প্রথম শাড়ির অভিনেত্রীদের মধ্যে প্রথম দিকেই দেখতে পাওয়া যায় তাঁর নাম। ছোট পর্দার পাশাপাশি বড় পর্দাতেও পার্কেছেন অভিনেত্রী। এছাড়া অতিথি প্ল্যাটফর্মেও দেখিয়েছেন নিজের জাদু। এই অভিনেত্রী সবকিছু বাদ দিলে ঘুমোতে খুব ভালোবাসেন।

এ বিষয়ে আমাদের কারোরই হয়তো স্পষ্ট কোন ধারণা ছিল না। আমরা তাঁকে ঠিক যতোটুকু চিনতাম তাতে শুধুই জানতাম অভিনেত্রী অভিনয়ের পাশাপাশি বই পড়তে ও সিনেমা দেখতে খুব পছন্দ করেন। কিন্তু এবার একটি অন্য বিষয়তেও নজরপাত করালেন আমাদের সকলের “দাদা” অর্থাৎ “প্রিন্স অফ ক্যালকাটা” সৌরভ গাঙ্গুলী। এই ব্যাপারটা আমরা অনেকেই জানতাম না।

দাদাগিরির মঞ্চে উপস্থিত হয়ে নিজের মুখেই স্বীকার করেছেন অভিনেত্রী। আর তার সাথেই সোলাঙ্কির আরেক সহ অভিনেত্রী কৌশম্বি পাশ থেকে হঠাৎই বলে ওঠেন একটু মাথা গোজার জায়গা পেলেই হল। বলতে গেলে আমাদের খড়ির জীবনের লক্ষ্য হয়ে দাঁড়িয়েছে ঘুম।

অভিনেত্রী নিজেই স্বীকার করেছেন তাঁর কাছে নাকি তিনি ১৫ ঘণ্টা ঘুম কিছুই নয়। রাত জাগার অভ্যাস থাকায় সকালে তাড়াতাড়ি ঘুম থেকে উঠতে পারেন না অভিনেত্রী। কিন্তু এখন তাঁকে তাঁর মায়ের চাপে এবং কাজের প্রেসারে তাড়াতাড়ি উঠে যেতেই হয়। সকালে ঘুম না ভাঙলেও কাজের জন্য তিনি উঠতে বাধ্য।

প্রসঙ্গত অভিনেত্রী বললেন তাঁর স্বামী পেশায় একজন ব্যাংক কর্মী এবং ক্রিকেটার আর তাঁর শ্বশুর মশাই ক্রিকেটের কোচ। তাঁর স্বামী পেশাগতভাবে ক্রিকেটার না হলেও শখে খেলেন এবং ভালই খেলতে পারেন। কিন্তু অভিনেত্রীর শ্বশুরমশাই বেশ ভালই জনপ্রিয় একজন ক্রিকেটের কোচ। নাম কুনাল বসু। নাম উল্লেখ করা মাত্রই দাদা চিনতে পারলেন তাকে। কুনাল বসুর সাথে দাদাও ক্রিকেট প্র্যাকটিস করেছেন। এই কথা হওয়া মাত্রই দাদা বলেন সত্যিই পৃথিবীটা বড্ড ছোট।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।