বাংলা সিরিয়াল

গত চার বছর পূজোয় এক্কেবারে একা সোনামণি! এত বছর টলিপাড়ায় থাকা সত্ত্বেও “কেউ আমার সাথে বন্ধুত্ব করতে চায় না” দাবী অভিনেত্রী সোনামনি সাহার

পুজো মানেই প্রেম পুজো মানেই বন্ধুদের সাথে জমিয়ে আড্ডা আর প্যান্ডেলে প্যান্ডেলে বন্ধু কিংবা পরিবারকে নিয়ে পুজো পরিক্রমা । এভাবেই হাসি খুশিতে কেটে যায় এই বাঙালির চার দিনের দুর্গোৎসব। শুধু সাধারণ মানুষ নয়, পুজোর এই চারটে দিনের জন্য সেলিব্রিটিদেরও থাকে নানান প্ল্যান। কেউ কেউ তাদের বাড়ির পুজোয় আনন্দ করেন কেউ বা তাদের কাছে বন্ধুবান্ধবদের নিয়ে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে পূজোর বৈঠকি আড্ডায় যোগদান করে।

বিভিন্ন সংবাদ দের চ্যানেল হোক কিংবা জি বাংলা স্টার জলসার মত বড় বড় চ্যানেলে আয়োজন করা হয় পুজোর বৈঠকি আড্ডা এবং অনুষ্ঠান। কিন্তু এই অনুষ্ঠান থেকেই বাদ পড়েছে সোনামণি সাহা।

সোনামনির দাবি ” কেউ আমার সাথে বন্ধুত্ব করতে চায় না কোন অনুষ্ঠানেও আমাকে ডাকে না ,তাই গত চার বছর ধরে পূজো একাই কাটাচ্ছি।”

এত বছর ইন্ডাস্ট্রিতে থাকার পরেও কেন কোন বন্ধু নেই সোনামণি সাহার? আর কেনই বা তাকে ডাকা হয় না কোনও অনুষ্ঠানে?

বর্তমানে একটি জনপ্রিয় টিভি সিরিয়াল এক্কা দোক্কা তে অভিনয় করছেন সোনামণি। তাই এই দিনের বেশিরভাগ সময় টাই কাটছে শুটিং ফ্লোরেই। তবু পূজো আসলে মন নেচে ওঠে একটু ছুটি পাওয়ার জন্য। সোনামনিরও ঠিক এমনই অবস্থা ছুটি পাওয়ার জন্য দিন গুনছেন তিনি।

বন্ধু নেই , কোন অনুষ্ঠানেও তাকে ডাকা হয় না , তাহলে পুজোর চারটে দিন কি করেন অভিনেত্রী?

অভিনেত্রী অকপটে জানালেন , ” পুজোর চারটে দিন আমি নিজের সাথে সময় কাটাই। বন্ধু নেই তাই আড্ডা মারারও কোনো সুযোগ নেই তাই কখনো ইচ্ছা হলে একাই গাড়ি নিয়ে বেরিয়ে পড়ি প্যান্ডেলে ঠাকুর দেখতে। নিজেকে নিয়েই দিব্যি সময় কেটে যায়।”

এত নবাগতা অভিনেত্রী অভিনেতা থাকতেও ইন্ডাস্ট্রিতে এতদিনেও কেন বন্ধু হল না?

এক্ষেত্রেও অভিনেত্রী জানিয়েছেন , ” কি জানি হয়তো আমারই কোন সমস্যা আছে , তাই কেউ আমার বন্ধু হতে চায় না। না হলে কার না ইচ্ছে করে বলুন বন্ধুদের সাথে লংড্রাইভে যেতে ! একসাথে বসে আড্ডা মারতে! ”

তাহলে এবারে পূজো কেমন ভাবে কাটাবেন তিনি?

এই প্রশ্নের উত্তরে অভিনেত্রী জানান, ” আর কেনাকাটা তো ইতিমধ্যেই কমপ্লিট। পুরোপুরি নিজের মতো করে পুজোর চারটে দিন কাটাবো। সাজবোজো করবো আর তার সাথে খুব ভালো করে পেট পুজো চলবে। আমি পুজোর চারটে দিন একেবারে বাইরের খাবার খেতেই পছন্দ করি কখনো বাইরে খেতে চলে যায় কিংবা কখনো বাইরের খাবার বাড়িতেই আনিয়ে নিই। ব্যাস এটুকুই প্ল্যান । ”

তবে কি বন্ধুদের সাথে লং ড্রাইভে যেতে পারছেন না বলে কোন আক্ষেপ আছে তার?

এর উত্তরে অভিনেত্রী জানান, ” না ঠিক আক্ষেপ নয়, কোন আক্ষেপ নেই। ঘুরতে তো একাই যাওয়া যায়। চাইলেই কোন বাইরে থেকে ঘুরে আসা যায় কিন্তু কুঁড়েমির জন্য আর যাওয়া হয়ে ওঠে না।” বলতে বলতে হেসে উঠেছিলেন অভিনেত্রী।

আপনাদের এবারের পুজোর প্লান রেডি তো? পূজোর চারটে দিন কিভাবে কাটাবেন?

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।