বাংলা সিরিয়াল

“প্রমিলা লাহা আর আদিত্য আগারওয়ালের গল্প এবার বিরক্ত লাগছে” – সব ফাঁস হয়ে গিয়েও সিদ্ধার্থের ক্ষতি করছে প্রমিলার গুন্ডারা! মিঠাই এর গল্পে এবার বিরক্তি প্রকাশ করছেন দর্শক

একসময়ের গোটা বাংলার সবথেকে জনপ্রিয় ধারাবাহিক ছিল মিঠাই। জি বাংলায় প্রতিদিন রাত আটটার এই ধারাবাহিক মানুষের মনে এক আলাদা জায়গা করে নিয়েছিল। শুরু হবার পর থেকেই ধারাবাহিকের গল্প এমন ছিল যে মানুষের পছন্দ ভালোবাসা সবটাই তৈরি হয়েছিল একমাত্রই এই ধারাবাহিকের জন্য। ৫৬ বার বঙ্গ সেরা ধারাবাহিকের উপর থেকে এবারে মন উঠছে দর্শকের। মূলত ধারাবাহিকের গল্প অসহ্য করা হয়ে উঠছে দর্শকের কাছে।

মিঠাই ধারাবাহিকে কাউন্সিলর প্রমিলা লাহা এবং আদিত্য আগারওয়ালের এন্ট্রি আর তাদের লাগাতার ষড়যন্ত্র আর পছন্দ হচ্ছে না দর্শকের। কিন্তু এই ধারাবাহিকের তাদের ষড়যন্ত্রের কারণেই টিআরপি কমতে থাকে এমন টাও মনে করছেন কিছু দর্শক। এদের দুজনের একের পর এক ষড়যন্ত্র আর মিঠাইয়ের সেই ষড়যন্ত্র বারবার ভেদ করা আর দেখতে পারছে না দর্শক। দিন দিন টিআরপি গুনতে যাওয়ায় নতুন মোর ঘোরানো হয়েছে ধারাবাহিকের। প্রমিলা লাহার সমস্ত চক্রান্ত ফাঁস হয়ে গিয়েছে মোদক পরিবারের সকলের সামনে। প্রমিলা লাহা সকলের সামনে যে ভালো মুখোশ পরে থাকতেন সেটাই সকলের সামনে টেনে খুলে দেওয়া হয়। এই কাজে তোর্ষা সহ সকলে জোট বেঁধে নেমেছিলেন।

প্রমিলা সাহা মোদক পরিবারের সঙ্গে যা যা করেছে তার সমস্ত প্রমাণ তুলে দেওয়া হয়েছে পুলিশের হাতে। এমনকি পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে নিয়ে যান। কিন্তু প্রমিলা গ্রেপ্তার হওয়ার পরেও তার গুন্ডারা নজর রাখে মোদক পরিবারের উপরে। প্রমিলার গুন্ডারা এক অন্ধকার গলিতে মিঠাইয়ের ওপর হামলা করে। কিন্তু চিকিৎসা সারিয়ে মিঠাইকে বাড়ি ফিরিয়ে নিয়ে আসা হয়। আর তারপর এই প্রমীলার গুন্ডারা আবার আক্রমণ করে সিডের উপর। অন্ধকার রাস্তা থেকে চেঁচামেচির আওয়াজ শুনে দাদু বাইরে বেরিয়ে এসে দাঁড়ায়। গলিটা অন্ধকার দেখে সন্দেহ হয় তাদের।

দাদুর কথা শুনে রাতুল, সিদ্ধার্থের বাবা, কাকা বেরিয়ে আসেন। তখন সিদ্ধার্থের বাবা রাতুলকে বলে যে একটু এগিয়ে গিয়ে দেখো তো অন্ধকার গলিতে কারা মারপিট করছে। রাতুল টর্চ হতে সেদিকে এগিয়ে যেতে দেখে একদল গুন্ডা সিদ্ধার্তকে মুখ চেপে ধরে মারছে। আর তাই দেখে রাতুল “সিড” বলে চিৎকার করে ওঠে। এবার শুধু এটাই দেখার যে পরবর্তী পর্বে আর কি হতে চলেছে। গুন্ডারা মিঠাই এর পরিবারকে শাস্তি দেবে নাকি মদক পরিবার শাস্তি দেবে গুন্ডাদের।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।