দেশ

মহারাষ্ট্রের উদ্ধব ঠাকরেকে দেওয়া কঙ্গনার অভিশাপ ফলতেই আবার‌ও উদ্ধবের বিরুদ্ধে গর্জে উঠলেন অভিনেত্রী!

উদ্ধব ঠাকুরের সাথে কঙ্গনা রানাওয়াতের একটা ঠান্ডা যুদ্ধ চলছে। আজ থেকে বছর দুই আগে শিবসেনার মুখপাত্র সঞ্জয় রাউতের একটি বিষয় নিয়ে তর্ক বিতর্কে জড়িয়ে পড়েন বলিউড অভিনেত্রী কঙ্গনা। সেই সময় তিনি মহারাষ্ট্রের তৎকালীন সরকার ও মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরের বিরুদ্ধেও কথা বলেছিলেন আর তারপরই শুরু হয়েছিল অভিনেত্রী আর মুখ্যমন্ত্রীর মধ্যে একটি ঠান্ডা লড়াই। শিবসেনা ও মহারাষ্ট্রের সরকারের বিরুদ্ধে বিতর্কিত মন্তব্য করার ফল হাড়ে হাড়ে টের পেয়েছিলেন কঙ্গনা। অভিনেত্রী যখন হিমাচল প্রদেশের নিজের বাড়িতে ছিলেন তখনই বেআইনি নির্মাণের অভিযোগ তুলে মুম্বাইয়ের অভিজাত এলাকায় অভিনেত্রীর অফিস ভেঙে গুড়ো করে দেওয়া হয়।

পুরো বিষয়টি জানতে পেরে সেইসময় বাঘিনীর মতো চিৎকার করে ওঠেন কঙ্গনা, মহারাষ্ট্রের তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধবকে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দেন তিনি, বলেন, “আজ আমার ঘর ভেঙেছে, কাল উদ্ধবের গুমোর ভাঙবে।” বাকসিদ্ধার মত ফলে গিয়েছে তার কথা, মুখ্যমন্ত্রীর পদ খুইয়ে ইস্তফা দিতে হয়েছে উদ্ধবকে। সম্প্রতি আবারও মহারাষ্ট্রের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী কে কটাক্ষ করে একটি ভিডিও শেয়ার করলেন কঙ্গনা।

কঙ্গনা তার এই ভিডিওতে বলেছেন, স্বয়ং শিব‌ও এবার শিবসেনাকে রক্ষা করতে পারবে না। কেন এই কথা বলেছেন অভিনেত্রী ভিডিওতে? তার কারণও ভিডিওর মধ্যে ব্যাখ্যা করেছেন তিনি। অভিনেত্রী বলেন,“ ২০২০ তে আমি বলেছিলাম গণতন্ত্রের মূল বিষয় হয় বিশ্বাস। কেউ যদি ক্ষমতার মোহে অন্ধ হয়ে মানুষের বিশ্বাস ভাঙ্গে তারও অহংকার চূর্ণ হবে। এটা কোন ব্যক্তি বিশেষের শক্তি নয়। এটা সচ্চরিত্রের শক্তি। হনুমানজিকে শিবের দ্বাদশ অবতার বলে মানা হয় আর যখন শিব সেনা‌ই হনুমান চালিশা কে বয়কট করে তখন তো তাদের স্বয়ং শিব‌ও বাঁচাতে পারবে না। হর হর মহাদেব, জয় হিন্দ, জয় মহারাষ্ট্র।”

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।