Storiesদেশ

এক অটোচালক থেকে মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী একনাথ শিন্ডে! কীভাবে হয়েছিল রাজনৈতিক এই উত্থান?

চা বিক্রেতা থেকে শুরু করে নরেন্দ্র মোদী যেমন দেশের প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন তেমনি একজন অটো চালক থেকে মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী হলেন একনাথ শিন্ডে। তার জীবন সকলের কাছে অনুপ্রেরণার। যেভাবে তিনি তৃণমূল স্তর থেকে লড়াই করে এই জায়গায় এসে পৌঁছেছেন সেই লড়াই এবং উত্থানের গল্প শুনলে চমকে যেতে হয়। ১৯৬৪ র ৯ ফেব্রুয়ারি একনাথ শিন্ড মহারাষ্ট্রে জন্মগ্রহণ করেন। তবে স্নাতক পাশ করতে পারেননি তিনি। স্নাতক পাশ করবার আগে পড়াশোনা ছেড়ে অটোচালক হিসেবে নিজের জীবন শুরু করেছিলেন একনাথ।

মুম্বাইয়ের থানেতে অটো চালাতেন একনাথ, সেই সময় থেকেই বালা সাহেব ঠাকরের হিন্দুত্বের আদর্শ তাকে আকর্ষিত করতো। হিন্দুত্বের আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে শিব সৈনিক হিসেবে কাজ শুরু করেন একনাথ। ১৯৯৭ সালে থানে মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশন থেকে কাউন্সিলর হিসেবে নির্বাচিত হন তিনি এরপর ২০০১ এ মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশন হাউসে বিরোধীদলের নেতা হন। ২০০২ এ গিয়ে তিনি দ্বিতীয়বার কর্পোরেশনের কাউন্সিলর হন।

২০০৪ সালে প্রথম বিধায়ক হন একনাথ, এরপরের বছর শিবসেনার থানে জেলার সভাপতি পদে নির্বাচিত হন তিনি। ২০১৪ সালে বিজেপি শিবসেনা জোট মহারাষ্ট্রের ক্ষমতায় অধীন হওয়ার সময় সেই সময়ের মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফঢনবিশের সাথে একনাথের ঘনিষ্ঠতা পূর্ণ একটি সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

প্রথম জীবন থেকে শুরু করে আজ অবধি তৃণমূল স্তরের লোকজনের সাথে বরাবর টাচে থেকেছেন একনাথ আর এই স্ট্রাটেজি তার উত্থানের পিছনে মূল রহস্য। আজ এই মানুষটির নেতৃত্বের ফলেই শিবসেনা কংগ্রেস ও এন সি পি জোট ক্ষমতাচ্যুত হয়েছে মহারাষ্ট্র থেকে। শিব সৈনিক একনাথ নেতা হয়ে যাওয়ার পরেও আজও নিম্নস্তরের কর্মীদের সাথে সংযোগ বজায় রেখেছেন তাইতো তার কঠোর সমালোচকও একথা নির্দ্বিধায় স্বীকার করেন যে, একনাথ ভোর থেকে কাজ শুরু করেন এবং মধ্যরাত পর্যন্ত দলীয় কর্মীদের সাথে থাকেন।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।