Success Stories

বাবা আবর্জনা সংগ্রহ করেন, ছেলে প্রথমবারেই সফল ডাক্তারির পরীক্ষায়! সামনে এল আশারাম চৌধুরীর সংগ্রাম ও অভাবনীয় সাফল্যের গল্প

সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে মাঝেমধ্যেই নেটিজেনদের সামনে আসে অনেকের সংগ্রাম এবং সাফল্যের গল্প। এবার সামনে এলো এক প্রত্যন্ত গ্রামের যুবক আশারাম চৌধুরীর দারিদ্র্যের সঙ্গে লড়াই করে ডাক্তার হয়ে ওঠার গল্প। বিজয়গর মান্ডি নামের গ্রামের পড়ুয়া আশারামের বাবা পেশায় একজন আবর্জনা সংগ্রাহক। পাশাপাশি ছেলে মেয়েদের স্কুলের খরচা জানানোর জন্য অনেক সময় খেতে মজুরের কাজও করতে হয়েছে তাকে।

ছোটবেলা থেকেই আশারাম পড়াশোনা অত্যন্ত ভালো হওয়ার কারণে গ্রামের স্কুলে পঞ্চম শ্রেণী পর্যন্ত পড়ার পর নবোদয় বিদ্যালয়ে দ্বাদশ শ্রেণী পর্যন্ত পড়েন তিনি। এ ব্যাপারে ওই যুবক জানিয়েছেন তার বাবা এবং মা কঠোর পরিশ্রম করে তাকে ও তার ভাই বোনেদের পড়াশোনা চালিয়ে নিয়ে যেতে সাহায্য করেছেন। এরপর ২০১৯ সালে প্রথমবারেই ডাক্তারি পরীক্ষায় দারুন ফলাফল করেন ওই যুবক। বর্তমানে যোধপুর থেকে এমবিবিএস করছেন আশারাম।

প্রসঙ্গত তার গল্প প্রথমবার সামনে এসেছিল প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদি ‘মন কি বাত’ এর মাধ্যমে। এরপর তার অসাধারণ মেধা এবং সংগ্রামের জন্য মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহান জানান পড়াশোনার জন্য আশারামকে আর কোনরকম খরচা দিতে হবে না। পাশাপাশি পাকা বাড়িরও ব্যবস্থা করা হয় তার পরিবারের জন্য। বলাই বাহুল্য তার গল্প সামনে আসতেই নেটিজেনরা জানিয়েছেন তারা দারুন অনুপ্রাণিত হয়েছেন আশারামের জীবন কাহিনী শুনে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।