Viral

বাইক নিয়ে ট্রাফিক পুলিশের সাথে বচসার জেরে হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়লেন এক জওয়ান! মেদিনীপুরের বুকে ঘটা এই ঘটনা তুমুল ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়

ছুটির সকালে বেশ আমেজে শুরু হয়েছিল সকালটা। কিন্তু তারপরেই শহরের বুকে এক ঘটনা বদলে দিল পুরো দিনটা। শহরের বুকে এরকম একটি ঘটনার পরই সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে তোলপাড় শুরু হয়েছে। ট্রাফিক পুলিশের গায়ে হাত তোলার অভিযোগ উঠলো এক CISF এর বিরুদ্ধে। তারপরেই পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয় ওই যুবককে। নেটদুনিয়ায় তুমুল ভাইরাল হয়েছে এই ভিডিও। কর্তব্যরত পুলিশকে গায়ে হাত তোলা নিয়ে একেবারে সারাদিন সরগরম সোশ্যাল মিডিয়া। সমাজ মাধ্যমে বিভিন্ন জন বিভিন্ন মতামত দিয়েছেন।

ঘটনার বিবরণে জানা গিয়েছে, রবিবার সকালে শহরের বিডিও অফিসের দিক থেকে কুইকোটার রাজ্য সড়কের দিকে ওই যুবক বাইক নিয়ে যাচ্ছিলেন। ছুটির দিন হওয়ায় রাস্তা অত্যন্ত যানজট ছিল যে কারণে বাইক নিয়ে যাওয়ার সময় ট্রাফিক পুলিশদের সাথে চরম বচসাতে জড়িয়ে পড়ে। তর্কাতর্কি চলাকালীন সেইসময় যিনি দায়িত্বে ছিলেন সেই ট্রাফিক পুলিশ যুবককে লাইসেন্স এবং গাড়ির সমস্ত কাগজ পত্র দেখতে চেয়েছিলেন তারপরেই বাঁধে বিপত্তি। ট্রাফিক পুলিশ হঠাৎ করেই যুবকের গাড়ির চাবি নিয়ে নিলেই যুবক রেগে গিয়ে মারামারি করতে শুরু করেন। সম্পূর্ণ ঘটনাটি রেকর্ড করেছেন কেউ তারপরেই সেই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় বিপুল ভাবে ছড়িয়ে পড়ে।

ঘটনার পরেই সাথে সাথে ঘটনাস্থলে পৌঁছে যায় কোতোয়ালি থানার পুলিশ। যুবককে কর্তব্যরত পুলিশকে চড় মারার জন্য সাথে সাথে গ্রেফতার করা হয়। ওই জওয়ানের বাড়ি মেদিনীপুর শহরের গোলাপীচকে বাড়ি। যুবক জানিয়েছেন, ট্রাফিক পুলিশ অযথা তাঁকে হেনস্থা করেছেন রাস্তায়। তারপরেই বাইকের চাবি নিয়ে নেওয়াতে হাতাহাতি শুরু হয়ে যায় দুজনের মধ্যে। ট্রাফিক পুলিশেরা ওই যুবকের নামেই অভিযোগ জানিয়েছেন।

সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর থেকে তুমুল শোরগোল পড়েছে। এক একজনের এক একেক রকম মত। কেউ জওয়ানের পক্ষ নিয়ে কথা বলছেন কেউ আবার ট্রাফিক পুলিশের। তবে অনেকের মতামত যে ট্রাফিক পুলিশেরা এভাবে কাগজ দেখার নাম করে টাকা আদায় করে তাই ঘটনাকে সমর্থন জানিয়েছেন অনেকেই। তবে কেউ কেউ আবার ওই যুবকের এমন আচরণ করা ঠিক হয়নি বলেই মন্তব্য করেছেন। ছুটির দিনে শহরের বুকে এমন ঘটনা রীতিমতো চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।