Stories

সংসার বাঁধার স্বপ্ন নিয়েই হয়তো বিয়ে করেছিলেন, কিন্তু পারেননি! স্ত্রীর সাফল্যে হিংসা নাকি পরকীয়া, কেন ভেঙেছিল প্রসেনজিৎ দেবশ্রীর সংসার

সর্বজয়া সিরিয়ালের মাধ্যমে দেবশ্রী রায় বহুদিন পর আবার পর্দায় ফেরেন। নিরহংকারী একজন সাদামাটা মানুষ হলেন এই অভিনেত্রী। বহুদিন আগে প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের সাথে বিয়ে হয়েও সংসার টেকেনি তাদের। টালিপাড়ায় কান পাতলে আজও শোনা যায় তাদের এই বিচ্ছেদের গল্প।

1992 সালে বাংলার প্রতিটি সংবাদপত্রের শিরোনাম তৈরি করেছিল প্রসেনজিৎ-এর সাথে দেবশ্রীর বিয়ের। প্রথমে দেবশ্রী এবং প্রসেনজিৎ বন্ধু ছিলেন তারপরে তাদের মধ্যে প্রেম হয় এবং বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়ে পড়েন। তবে এই বিয়ের মেয়াদ বেশিদিন ছিল না। অনেক সংবাদপত্রে তাঁদের বিয়ের পর এক্সক্লুসিভ ইন্টারভিউ ও ছবি প্রকাশিত হয়েছিল। দুজনের ঘনিষ্ঠ ছবি অনুরাগীদের বেশ পছন্দের ছিল। তবে সেই সুখ সইলো না। হঠাৎই সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত হলো প্রসেনজিৎ দেবশ্রীর বিবাহ বিচ্ছেদ হতে চলেছে।

মামলা চলাকালীন সময়ে ঋতুপর্ণ ঘোষের (Rituporno Ghosh) ফিল্ম ‘উনিশে এপ্রিল’-এ একসাথে অভিনয় করেছিলেন দেবশ্রী ও প্রসেনজিৎ। কিন্তু ছবিটি যখন মুক্তি পেল তখন তাদের ডিভোর্স হয়ে গেছে। মামলা চলাকালীন দেবশ্রী প্রসেনজিতের কাছে ফিরে যেতে চাইলেও প্রসেনজিৎ ফিরিয়ে নেন নি।

কয়েক বছর পর প্রসেনজিৎ তাদের বিবাহ বিচ্ছেদ নিয়ে মুখ খোলেন। তিনি বলেন তার সাথে দেবশ্রীর যখন বিয়ে হয়েছিল তখন তারা পরিণত ছিল না। খুব তাড়াতাড়ির মধ্যে বিয়েটা হয়ে গেছিল। তাদের মধ্যে এমন কিছু সমস্যা তৈরি হয়েছিল যা সমাধান তাদের দুজনের হাতের বাইরে চলে গিয়েছিল। তবে যে বাড়িটাই তাদের প্রথম সংসার শুরু হয় সেই বাড়িটা দেখে প্রসেনজিৎ আজও আবেগ তাড়িত হয়ে পড়েন। প্রসেনজিতের কাছে দেবশ্রী আজও প্রথম প্রেমিকা হয়ে রয়ে গেছেন। তবে দেবশ্রী প্রসেনজিতের সম্পর্কে কোনো মুখ খুলতে চাননি। আনমনা হয়ে পড়েন। সত্যি কি একটা কাগজ দুটো মানুষের মধ্যে বৈবাহিক সম্পর্ককে ভেঙে দিতে পারে? প্রশ্নের উত্তর হয়তো দেবশ্রী প্রসেনজিৎ দিলেও তাদের অনুরাগীরা তলিয়ে ভাবেননি।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।