রাজ্য

প্রিসাইডিং অফিসারের মাথায় বন্ধুক ঠেকিয়ে ছাপ্পা ভোট, পাশাপাশি ভেঙে দেওয়া হল পুলিশের রাইফেল! নির্বাচন ঘিরে উত্তপ্ত খড়গপুর

পৌরসভা নির্বাচন ঘিরে এদিন সকাল থেকেই খড়্গপুরের বিভিন্ন অংশে ঝামেলার সূত্রপাত হয়েছিল বলে জানা গিয়েছে। এবার তার মধ্যেই জানা গেল খড়গপুর পুরসভার ৯ নম্বর ওয়ার্ডে ভোট লুঠ ও ইভিএম ভেঙে দেওয়ার খবর। জানা গিয়েছে এদিন নির্বাচন চলাকালীন খড়গপুর পুরসভার ৯ নম্বর ওয়ার্ডের ভারতী বিদ্যাপীঠে ঢুকে পড়েন প্রায় পনেরো জন দুষ্কৃতীর একটি দল। তাদের সকলেরই মুখে মাস্ক থাকায় এখনো পর্যন্ত কাউকে শনাক্ত করা সম্ভব হয়নি।

তবে তাদের বিরুদ্ধে প্রিসাইডিং অফিসারের মাথায় বন্দুকের নল ঠেকিয়ে তাকে নিগ্রহ করার পাশাপাশি এক পুলিসকর্মীর বন্দুক ভেঙে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। পরিস্থিতি সামলাতে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয় এক বিরাট পুলিশ বাহিনী। এখনো পর্যন্ত গোটা কাণ্ডে জড়িত সন্দেহে একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

ওই ওয়ার্ডের সিপিআইএম প্রার্থী নীলু সিং গোটা প্রসঙ্গে মুখ খুলে ইভিএম ভেঙে দেওয়া এবং ছাপ্পা ভোট দেওয়ার অভিযোগে অভিযুক্ত করেছেন রাজ্যের শাসক দলকে। তবে তৃণমূল প্রার্থী প্রবীর ঘোষ সরাসরি অস্বীকার করেছেন সমস্ত অভিযোগ।
অপরদিকে খড়্গপুরের ২২ নম্বর ওয়ার্ডের ট্রাফিক হাইস্কুলের নির্বাচন কেন্দ্রে কংগ্রেস প্রার্থী বিষ্ণু বাহাদুর কামিকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে তৃণমূলের বিরুদ্ধে। তবে পাল্টা তৃণমূল প্রার্থী হায়দার আলী জানিয়েছেন তাকেও শারীরিকভাবে নিগ্রহ করা হয়েছে। জানা গিয়েছে দু’পক্ষের বচসা থামাতে লাঠিচার্জ করতে বাধ্য হয় পুলিশ।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।