রাজ্য

‘বিদ্যা, বই আর ঘরের বউ কাউকে ধার দিতে নেই, কেন্দ্র টাকা দিচ্ছে না তবু বুদ্ধি খরচ করে ১০ লক্ষ কর্মসংস্থান তৈরি করেছি’! বললেন মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়!

রাজ্যের চাকরিপ্রার্থীদের জন্য সুখবর দিলেন মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বৃহস্পতিবার নেতাজি ইন্ডোরে স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ড প্রদান অনুষ্ঠানে মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী বলেন, শিক্ষক পদের ১৭ হাজার চাকরি তৈরি থাকলেও রাজ্য দিতে পারছে না। এছাড়া ৩০ হাজার চাকরি আরো তৈরি রয়েছে। এই ৩০হাজার চাকরি কারা পাবেন তাও বলেন এই দিন মুখ্যমন্ত্রী। মুখ্যমন্ত্রী বলেন যারা স্কিল ট্রেনিং নিয়েছেন তারা এই চাকরি পাবেন।

আই টি আই, পলিটেকনিক থেকে যারা স্কিল ট্রেনিং নিয়েছেন তাদের চাকরির ব্যবস্থা করবে রাজ্য সরকার, এই চাকরি প্রদানের জন্য তিনি একটি চাকরি মেলার আয়োজন করবেন বলেও জানান। মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী বৃহস্পতিবার বলেন, “আইটি আই ও পলিটেকনিকের স্কিল ট্রেনিং দিচ্ছি। জব ফেয়ার করছি আমরা। চাকরিপ্রার্থী ও চাকরিদাতাদের মিলিয়ে দিচ্ছি। ইতিমধ্যেই ৩০ হাজার চাকরি তৈরি আছে। স্কিল ট্রেনিং যারা নিয়েছেন তাদের চাকরি দেওয়া হবে।”

একই সাথে রাজ্যের শিক্ষা ব্যবস্থার প্রসঙ্গে মাননীয়া বলেন,“ বাংলার মেধা সবচেয়ে গর্বের মেধা। বিশ্বকে আলোকিত করে, আলোকবর্তিকা নিয়ে যায় ঘরে ঘরে। উচ্চশিক্ষায় কলকাতা যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় প্রথম সারিতে রয়েছে। সিবি‌এস ই ,আই সি এস ইর সঙ্গে আমাদের মান এখন এক।” একই সঙ্গে তিনি যে সমস্ত ছেলেমেয়েরা উচ্চশিক্ষিত হয়ে বিদেশে চলে যান তাদের উদ্দেশ্যে আহ্বান করে বলেছেন যে, “আমাদের ছেলেমেয়েরা স্নাতক হলো, আমেরিকা চলে গেল। একটা অনুরোধ, সবাই যদি বাইরে চলে যাও তাহলে দেশে কে থাকবে? তোমরা বাইরে যাও পড়াশোনা করে ফিরে এসো‌। মাতৃভূমি জন্মভূমিকে ভুলো না। এই মাটিতেই আবার ফিরে এসো। এই মাটি তোমাকে যা দিতে পারে, অন্য কেউ তা দিতে পারে না।”

একই সাথে মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী এই দিন কেন্দ্রের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে বলেন যে,“ ১০০ দিনের কাজের টাকা ছয় মাস ধরে বন্ধ। ইউজিসির টাকা দেওয়া হচ্ছে না। বাংলার ঘর তৈরির পরিকল্পনা বন্ধ করে দিয়েছে। এই টাকা তো এখান থেকে তুলে নিয়ে যায়। রাজনৈতিক কারণে আর্থিকভাবে অবরুদ্ধ করা হচ্ছে। তবুও বুদ্ধি খরচ করতে হয়। বিদ্যা বই আর ঘরের বউ কাউকে ধার দিতে নেই। বুদ্ধি খরচ করে টাকা না দেওয়া সত্ত্বেও ১০ লক্ষ কর্মসংস্থান তৈরি করেছি একশো দিনের কাজে।”

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।