রাজ্য

সরকারি মেনুতে রোজ ডিম-সয়াবিন থাকলেও পাতে পড়ছে জলের মত ডাল আর কুমড়োর ছক্কা! সামনে এল মিড-ডে মিলের বেহাল অবস্থা

সরকার নির্ধারিত মিড ডে মিলের যে মেনু রয়েছে সেখানে প্রায় প্রতিদিনই ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য ডিম, আলু পোস্ত, সয়াবিন, ঋতুকালীন সবজি রয়েছে। তবে বাস্তবে এবার দেখা গেল সম্পূর্ণ বিপরীত চিত্র। সম্প্রতি সামনে এসেছে বাঁকুড়ার দুবড়াকোন প্রাথমিক বিদ্যালয় এর চিত্র। যেখানে ডিম, সয়াবিন নয় বরং ছাত্র-ছাত্রীদের মুখে তুলে দেওয়া হচ্ছে পাতলা জলের মত ডাল, সঙ্গে কুমড়ো কিংবা লাউয়ের ছক্কা।

গোটা বিষয়টি নিয়ে মুখ খুলে ওই স্কুলের শিক্ষকরা জানিয়েছেন ক্রমাগত জ্বালানি এবং গ্যাস, আনাজ পত্র, মসলার দাম বাড়লেও সরকারের তরফে মাথাপিছু মিড ডে মিলের বরাদ্দ পয়সা বাড়েনি একটুও। যার ফলে ওই টাকার মধ্যে ডিম এবং সয়াবিনের মতো খাবার দিতে পারছেন না তারা। শিক্ষা দপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে পঞ্চম শ্রেণী পর্যন্ত প্রতি শিক্ষার্থীর মাথাপিছু বরাদ্দ করা হয়েছে ৪ টাকা ৯৭ পয়সা।

অপরদিকে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত মাথাপিছু বরাদ্দ করা হয়েছে ৭ টাকা ৪৫ পয়সা। এর মধ্যে গ্যাস সিলিন্ডার থেকে শুরু করে চাল বাদে এর সমস্ত খাবার কিনতে ব্যর্থ হচ্ছেন স্কুল কর্তৃপক্ষ। তবে এরকম খাবার চলতে থাকলে শিক্ষার্থীরা আর স্কুলে খাবেন না বলে এদিন দাবি করেছেন অভিভাবকরা। গোটা বিষয়টি নিয়ে ইতিমধ্যেই বিরোধীদের কাছে তীব্র কটাক্ষর শিকার হতে হচ্ছে রাজ্য সরকারকে।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।