রাজ্য

রাজ্যে আজ ৫০ কিঃমিঃ বেগে ঝড়ের সাথে বৃষ্টি! আন্দামানের সৃষ্ট ঘূর্ণাবর্ত কি ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হবে?

একটানা গ্রীষ্মের প্রচণ্ড দাবদাহের পর দিন কয়েক ধরেই রাজ্যজুড়ে নিম্নচাপ সৃষ্টি হয়েছে। কিছুদিন আগে কয়েকটি জেলায় ঝড় বৃষ্টি হ‌ওয়ায় গরমের দাপট কিছুটা হলেও কমেছে। সম্প্রতি আবার শোনা যাচ্ছে যে উত্তরবঙ্গ দক্ষিণবঙ্গ জুড়ে বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। হ্যাঁ দিন কয়েক ধরে বৃষ্টি হওয়ার পর আজও পশ্চিমবঙ্গের একাধিক জেলায় বৃষ্টি হবে বলে আবহাওয়া দপ্তর সূত্রে খবর পাওয়া যাচ্ছে। আজ একাধিক জেলায় ঘণ্টায় ৫০ কিলোমিটার বেগে ঝড় বইতে পারে।

আগামী পাঁচ দিনে পশ্চিমবঙ্গের তাপমাত্রার তেমন কোনো হেরফের না হলেও উত্তরবঙ্গে অর্থাৎ দার্জিলিং, জলপাইগুড়ি, কালিম্পং, আলিপুরদুয়ার, কোচবিহার, উত্তর দিনাজপুর, দক্ষিণ দিনাজপুর, এবং মালদহতে শনিবার পর্যন্ত বৃষ্টি চলবে। এর পাশাপাশি বজ্রবিদ্যুৎ-সহ হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। শুক্র রবি ও সোমবার উত্তরবঙ্গের আটটি জেলায় বজ্রবিদ্যুৎ সহ হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাত হতে পারে।

বৃহস্পতিবার দক্ষিণবঙ্গের সব জেলায় বজ্রবিদ্যুৎ-সহ হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস রয়েছে। উত্তর ২৪ পরগনা ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা, পূর্ব মেদিনীপুর, হাওড়া, কলকাতা, হুগলি, পুরুলিয়া, ঝাড়গ্রাম, পশ্চিম মেদিনীপুর, বাঁকুড়া, পশ্চিম বর্ধমান, পূর্ব বর্ধমান, বীরভূম মুর্শিদাবাদ এবং নদীয়া ইত্যাদি জায়গায় ঘণ্টায় ৪০ থেকে ৫০ কিলোমিটার বেগে ঝোড়ো হাওয়া বইবে।

উত্তরবঙ্গে শনিবার বৃষ্টি হলেও কয়েকটি জেলায় বৃষ্টির মাত্রা বেশ কম থাকবে। এছাড়া উত্তর দিনাজপুর, দক্ষিণ দিনাজপুর সহ মালদহ তে বজ্রবিদ্যুৎ-সহ হালকা বৃষ্টি হতে পারে খবর তবে অন্যান্য ৫ জেলায় অর্থাৎ কোচবিহার, দার্জিলিং, জলপাইগুড়ি, কালিম্পং, আলিপুরদুয়ারে বজ্রবিদ্যুৎ-সহ হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে।

শুক্রবারে দক্ষিণবঙ্গের সমস্ত জেলায় বজ্রবিদ্যুৎ সহ হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাত হতে পারে তবে ঝড়ের কোন পূর্বভাস নেই। তবে উত্তর ২৪ পরগনা, দক্ষিণ ২৪ পরগনা, পূর্ব মেদিনীপুর, হাওড়া, হুগলি ও পশ্চিম মেদিনীপুরের কয়েকটি জায়গায় ঘণ্টায় ৪০ থেকে ৫০ কিলোমিটার বেগে ঝড় হ‌ওয়ার সম্ভাবনা প্রবল।

শনিবার দক্ষিণবঙ্গের সব জেলায় বৃষ্টি হলেও জানা যাচ্ছে যে বৃষ্টির মাত্রা খানিকটা কমবে। তবে দুই ২৪ পরগনা এবং পূর্ব মেদিনীপুরে বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টি হতে পারে। আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর সূত্রে পাওয়া খবর অনুযায়ী দক্ষিণ আন্দামান সাগরে একটি ঘূর্ণাবর্ত সৃষ্টি হয়েছে শুক্রবারের মধ্যে নিম্নচাপে পরিণত হবে তারপর রবিবারের মধ্যে যা গভীর নিম্নচাপে পরিণত হবে ও তা উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর হবে। এই ঘূর্ণাবর্ত শক্তি বাড়িয়ে ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হবে কিনা তা এখনি বোঝা যাচ্ছেনা। তবে এই নিম্নচাপের প্রভাবে শনিবার পর্যন্ত আন্দামান-নিকোবরে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।