রাজ্য

‘কে করবে বাগদেবীর আরাধনা’, চুলোচুলি হাওড়ার লালবাবা কলেজে টিএমসিপির দুই গোষ্ঠীর! ‘কড়া শাস্তি চাই’, দাবি অধ্যক্ষের

সম্প্রতি কৃষ্ণনগর কলেজিয়েট স্কুলে দুই শিক্ষকের মধ্যে তুমুল মারামারিr দৃশ্য দেখতে পেয়েছিলেন নেটিজেনরা। এবার দুই ছাত্র গোষ্ঠীর মধ্যে প্রবল মারামারি চিত্র উঠে এল হাওড়া লালবাবা কলেজ এর মাধ্যমে। প্রসঙ্গত দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর অবশেষে গত বৃহস্পতিবার খুলেছে রাজ্যের সমস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। মুখ্যমন্ত্রী জানিয়ে দিয়েছিলেন যাতে সরস্বতী পুজো করতে পারে ছাত্রছাত্রীরা, সেই জন্যই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি। তবে এবার সরস্বতী পুজো করা নিয়েই চুলোচুলি করতে দেখা গেল হাওড়া লালবাবা কলেজের টিএমসিপির দুই ছাত্র গোষ্ঠীকে।

প্রসঙ্গত গোটা বিষয়টি নিয়ে মুখ খুলেছেন কলেজের অধ্যক্ষ। তিনি জানিয়েছেন মারামারি শুরু হতেই বালি পুলিশকে খবর দিয়েছিলেন তিনি। ঘটনাস্থলে পুলিশের সঙ্গে হাজির হয় সংবাদমাধ্যমও। সেখানেই দেখতে পাওয়া যায় কলেজের ছাত্রীরা রীতিমত চুলোচুলি করছেন। পাশাপাশি ব্যবহার করা হচ্ছে অসংখ্য অশ্লীল ভাষার। ইতিমধ্যেই কলেজের এক ছাত্রী শারীরিক হেনস্তার অভিযোগ এনেছেন বিরোধী দলের বিরুদ্ধে।

কলেজের মধ্যে টিএমসিপির দুটি ছাত্র গোষ্ঠী সংঘটিত হয়েছে কিনা সে প্রসঙ্গে অধ্যক্ষ জানিয়েছেন দুটি দল থাকলেও তারা সকলেই স্থানীয় এমএলএকে নিজেদের নেতা বলে মানেন। তিনি জানিয়েছেন দুটি দলই যখন সরস্বতী পুজো করতে চেয়েছিল, তখন তিনি তাদেরকে মিলেমিশে একসাথে পুজো করার কথা বলেছিলেন, কিন্তু তারা তাতে রাজি হয়নি। পাশাপাশি তিনি যে বারংবার ছাত্র-ছাত্রীদের রাজনীতি ছেড়ে পড়াশোনায় মন দেওয়ার কথা বলেছেন সে কথাও জানিয়েছেন অধ্যক্ষ। এদিন প্রশাসনের কাছে তিনি আবেদন করেছেন যাতে ঘটনায় জড়িত দোষীদের চরম শাস্তি হয়।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।