রাজ্য

‘বিয়ের অনুষ্ঠান যখন হচ্ছে, তখন স্কুলও খোলা হোক’! দাবি জানিয়ে গলায় প্ল্যাকার্ড ঝুলিয়ে বিয়ের পিঁড়িতে স্কুলশিক্ষক বর

ক্রমবর্ধমান করোনা পরিস্থিতি আটকানোর জন্য আবারো রাজ্যের তরফে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে সমস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। তবে এবার অবিলম্বে স্কুল-কলেজ খুলে দেওয়ার দাবি নিয়ে গলায় প্ল্যাকার্ড ঝুলিয়ে বিয়ের পিঁড়িতে বসতে দেখা গেল একজন স্কুল শিক্ষক বরকে। আলিপুরদুয়ারের এই ঘটনায় রীতিমতো চাঞ্চল্য পড়ে গেছে শিক্ষা মহলে। কারণ এতদিন অভিভাবকরা স্কুল খোলার দাবি জানালেও এবার তাতে সামিল হয়েছেন এক শিক্ষক।

জানা গিয়েছে অসীম দাস নামের ওই ব্যক্তি কুমারপাড়া মথুরাবাগান প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক। এদিন স্কুল খোলার দাবিকে সকলের সামনে তুলে ধরার জন্য নিজের বিয়ের অনুষ্ঠানকে ব্যবহার করেছেন তিনি। জানিয়েছেন আপাতত রাজ্যে সমস্ত রকম অনুষ্ঠান হচ্ছে, সব কাজ চলছে। তাহলে শুধু শুধু শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করে রাখা অর্থহীন।

সংবাদমাধ্যমকে সদ্যবিবাহিত ঐ ব্যক্তি জানিয়েছেন তিনি পেশায় শিক্ষক এবং প্রতিমাসে নিয়মিত বেতন পাচ্ছেন তিনি। কিন্তু বেতন ঠিক থাকলেও স্কুল বন্ধ থাকায় শিক্ষা যে বন্ধ হয়ে গিয়েছে সে কথা জানাতে ভোলেননি তিনি। পাশাপাশি তাঁর দাবি রাজ্যে অন্যান্য সমস্ত কাজই নিয়মিত চলছে বন্ধ শুধু শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।

প্রসঙ্গত ইতিমধ্যেই দীর্ঘ প্রায় দু’বছর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকার জন্য ক্ষতি হচ্ছে পড়ুয়াদের এমন দাবি জানিয়ে প্রতিবাদ করতে দেখা গিয়েছিল অভিভাবকদের রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায়। সম্প্রতি শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা নিয়ে সিদ্ধান্ত জানাবেন খুব শীঘ্রই। তার মধ্যেই এক শিক্ষকের অভিনব প্রতিবাদ এবার নজর কাড়লো সকলের।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।