রাজ্য

পার্থ ঘনিষ্ঠ অর্পিতার ফ্ল্যাটে লালবাতি জ্বলা গাড়িতে করে প্রায় লোক আসতো! কী করতেন পার্থ ঘনিষ্ঠ অর্পিতা?

তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় ও পার্থ ঘনিষ্ঠ অর্পিতা মুখোপাধ্যায়কে নিয়ে রাজ্য রাজনীতি উত্তাল হয়ে আছে। শনিবার সকাল ১০ টা নাগাদ রাজ্যের শিল্প মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে গ্রেফতার করে ইডি আর পাশাপাশি অর্পিতা মুখোপাধ্যায়কে আটক করে। দক্ষিণ কলকাতায় অর্পিতার একটি ফ্ল্যাট আছে, সেখান থেকে ২১ কোটির অধিক টাকা উদ্ধার করেছে ইডি। একই সাথে ৫০লক্ষ টাকার সোনার গহনা‌ও পাওয়া গেছে।

ইডি জানিয়েছেন, এত বিপুল পরিমাণ টাকার উৎস কী তাও বলতে পারেননি অর্পিতা। এত বিপুল পরিমাণ টাকা তার ঘর থেকে পাওয়ার পরে নানান রকম প্রশ্ন তৈরি হয়েছে! অর্পিতা আসলে কী করতেন? কোথা থেকে তার কাছে এত টাকা এলো? পার্থর সাথে তার সম্পর্কই বা কী রকম? এই নিয়ে একাধিক প্রশ্ন উঠছে। যদিও সেসব প্রশ্নের উত্তর বর্তমানে ধোঁয়াশায়।

অর্পিতাকে এই বিপুল অঙ্কের টাকার উৎসের বিষয়ে জিজ্ঞেস করলে অর্পিতা বলেন, তিনি একজন অভিনেত্রী। অভিনয় থেকেই তার সমস্ত আয়। এমনকি সোশ্যাল মিডিয়াতেও নিজেকে একজন অভিনেত্রী বলেই দাবি করেন অর্পিতা। ২০০৫ সালে মডেলিং দিয়ে তিনি বিনোদন জগতে প্রবেশ করেন তারপর অভিনয় করতে শুরু করেন তিনি। প্রসেনজিৎ অভিনীত মামা ভাগ্নে এবং জিৎ অভিনীত পার্টনার ছবিতে গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করার পাশাপাশি উড়িষ্যার বেশ কিছু সিনেমাতে ও অভিনয় করেছেন তিনি। মডেল হিসেবে কিছু বিজ্ঞাপনেও কাজ করেছেন অর্পিতা। তবে তা থেকে মোট কত টাকা উপার্জন করেছেন তার কোন সুদুত্তর দিতে পারেননি অভিনেত্রী। অর্পিতার মায়ের দাবি অভিনয় মডেলিং করার পাশাপাশি মেয়ে আর কী করে তা তিনি‌ও জানেন না।

এসবের পাশাপাশি অর্পিতার আরও সম্পত্তির হদিশ মিলেছে। ইডি জানতে পেরেছে বেলঘরিয়ায় রথ তলা এলাকার একটি অভিজাত আবাসনের দুটো ফ্ল্যাট আছে অর্পিতার। সেখানকার আবাসিকরা দাবি করেছেন যে কয়েক মাস আগে ফ্ল্যাটে নিয়মিত আসতেন অর্পিতা। এমনকি এই আবাসনে মাঝে মধ্যে লালবাতির গাড়ি চড়ে কেউ কেউ আসতেন। তবে তারা অর্পিতার কাছে আসতেন কিনা তা এখনো স্পষ্ট নয়। আবাসনের রেজিস্ট্রারে সব লেখা থাকবে তা খতিয়ে দেখলেই বিষয়টি পরিষ্কার হবে।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।