দেশ

কেন্দ্রীয় রেশন ব্যবস্থার সুযোগ এইবার থেকে পাবেন লোধা ও শবররা

এইবার কেন্দ্র সরকারের নির্দেশিকা লোধা‌ ও শবর আদিবাসীভুক্ত পরিবারদের জন্য সুবিধা দেওয়া হয়। লোধা ও শবর জনগোষ্ঠীর মানুষদের মন জয় করতে কেন্দ্রের তরফ থেকে নতুন নির্দেশিকা জারি করা হলো। কেন্দ্র সরকারের খাদ্যমন্ত্রকের তরফ থেকে জানানো হয়েছে যে , লোধা ও শবরদের মত পরিবারদের জন্য রেশনে বিশেষ সুযোগ-সুবিধা দেওয়া হবে। খাদ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, রাজ্যের খাদ্য সুরক্ষা যোজনা প্রকল্পের আওতায় আছেন লোধা ও শবরদের মত কোন পরিবার চাইলে কেন্দ্রীয় রেশন প্রকল্পের আওতায় আসতে পারেন। কেন্দ্রের রেশনে আদিবাসী দুই সম্প্রদায়ের মানুষদের বিশেষ সুযোগ-সুবিধা দেওয়ার কথা বলায় রীতিমতো শোরগোল পড়ে গিয়েছে চারিদিকে।

কেন্দ্রের এমন নির্দেশিকা নিয়ে তৃণমূল সরকার অভিযোগ করেছে যে, সামনের বছর পঞ্চায়েত নির্বাচন রয়েছে, তাই এই মুহূর্তে ভোটের কথা মাথায় রেখেই গ্রামবাংলার মানুষের সমর্থন আদায় করতে চাইছে বিজেপি। তাই আদিবাসী এই সম্প্রদায়ের মানুষদের মন পেতে লোধা ও শবরদের জন্য এমন নির্দেশিকা জারি করেছে বিজেপি। তবে শুধুই জঙ্গলমহলের আদিবাসী সম্প্রদায় নয়, তার পাশাপাশি বিশেষভাবে সক্ষম, রূপান্তরকামী ও পিছিয়ে পড়া নানা প্রজাতির মানুষদের জন্য‌ও এই সুযোগ দেওয়া হচ্ছে কেন্দ্র সরকারের তরফ থেকে। এই সুযোগ কারা কারা পাবেন তা নির্ধারণের ভার আধিকারিকদের উপর দেওয়া হয়েছে, আর আগামী ২৮ শে এপ্রিলের মধ্যে সেই তালিকা প্রস্তুত করে পাঠাতে বলা হয়েছে।

উল্লেখ্য, বর্তমানে রাজ্যের খাদ্য সুরক্ষা যোজনায় দুইটি প্রকল্প চালু রয়েছে। একটি প্রকল্পে মাথাপিছু ২ কেজি চাল ও ৩ কেজি গম দেওয়া হয়। অপর প্রকল্প অনুযায়ী গম ও চাল মেলে ১ কেজি করে। কেন্দ্রীয় প্রকল্প অন্ত্যোদয় অন্ন যোজনায় প্রতিমাসে পরিবার পিছু ১৫ কেজি চাল ও ২০ কেজি আটা দেওয়া হয়, এছাড়া পিএইচ প্রকল্পে প্রতিমাসে ৩ কেজি আটা ও ২ কেজি চাল পাওয়া যায়।

এখন বর্তমানে জারি হ‌ওয়া এই নির্দেশিকাকে নিয়ে প্রশাসনিক মহলেও ব্যাপক প্রতিক্রিয়া শুরু হয়ে গেছে। প্রশাসনিক মহলে কর্মকর্তাদের বক্তব্য, কেন্দ্রীয় প্রকল্প বর্তমানে রাজ্যের সাড়ে ৬ কোটির উপর গ্রাহক রয়েছেন। বাকি সাড়ে চার কোটি গ্রাহকদের দায়িত্ব রাজ্য সরকার নিয়ে থাকেন। এই পরিস্থিতিতে কেন্দ্রীয় প্রকল্পের আওতায় সুযোগ পেলে অনেকেই সেই প্রকল্পের সুযোগ নিতে চাইতে পারেন। ‌অন্যদিকে তৃণমূল শিবিরের বক্তব্য, এই প্রকল্পকে সামনে রেখে বিজেপি সরকার জঙ্গলমহল ও বিভিন্ন এলাকার পিছিয়ে পড়া পরিবারের মানুষদেরকে ভুল বোঝাবে। – সব নিয়েই রাজ্য রাজনীতি এই মুহূর্তে বেশ উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।