দেশবিদেশ

বিলগেটসকে জোর টেক্কা দিয়ে বিশ্বের শীর্ষ ধনী ব্যক্তির জায়গায় আসতে চলেছেন গৌতম আদানি

ধনী হওয়ার চেষ্টা যেমন সবাই করেন, তেমনি ধনী হওয়ার পরেও আর‌ও ধন সম্পদ বাড়ানোর চেষ্টাও প্রতিনিয়ত লেগেই থাকে। এইভাবে কেউ কেউ ধনীদের মধ্যে শীর্ষস্থান অধিকার করেন, তৈরি করেন রেকর্ড। ঠিক যেমন এইবার বিশ্বের অন্যতম ধনী ব্যক্তি বিলগেটসকে কড়া টক্কর দিলেন গৌতম আদানি। আদানি গ্রুপের শেয়ার ক্রমাগত বৃদ্ধির ফলে এশিয়ার সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি গৌতম আদানির ধন সম্পদের পরিমাণ প্রতিদিন উল্লেখযোগ্য হারে বাড়ছে।

বর্তমানে আদানি গ্রুপের গৌতম আদানি বিশ্বের চতুর্থ ধনী ব্যক্তির তকমা পেয়ে গিয়েছেন। মাইক্রোসফটের প্রতিষ্ঠাতা বিল গ্রেটসের মোট সম্পত্তির সমান হয়ে গেছে আদানির সম্পত্তির পরিমাণ। বিল গ্রেটসের সমান অর্থ-সম্পদ অর্জন করাই স্বাভাবিকভাবেই তিনি এখন মানুষের আলোচনার বিষয়বস্তু হয়ে উঠেছেন।

ব্লুমবার্গ বিলিয়নেয়ার্স ইন্ডেক্স অনুসারে জানা যায় যে, আদানি ও বিল গেটসের সম্পদের মূল্য সমান। দুজনেরই মোট সম্পদের মূল্য ১২৫ বিলিয়ন ডলার। তবে ফোর্বসের রিয়েল টাইম বিলিয়নেয়ার ইনডেক্স অনুযায়ী, গৌতম আদানি বিল গেটসের থেকে কিছুটা পিছিয়ে রয়েছেন। তার মোট সম্পদের পরিমাণ বলা হয়েছে আনুমানিক ১২,১৭০ কোটি ডলার। ফোর্বসের রিয়েল টাইম বিলিয়নেয়ার ইনডেক্স অনুসারে গৌতম আদানি বিশ্বের পঞ্চম ধনী ব্যক্তি। অন্যদিকে এই ইনডেক্স অনুসারে বিল গেটসের মোট সম্পদের পরিমাণ ১৩,২৩০ কোটি ডলার।

যদিও মাত্র এক দিনেই গৌতম আদানির সম্পদ ৬.৩ কোটি ডলার বেড়ে গেছে। অন্যদিকে ২০২২ সালে আদানির সম্পদ বেড়ে হয়েছে ৪৮.৩ বিলিয়ন ডলার। ২০২১ সালের শেষের দিকে গৌতম আদানির মোট সম্পত্তির পরিমাণ ছিল ৭৬.৭ বিলিয়ন ডলার। বর্তমানে আদানি গ্রুপ, আদানি পাওয়ার ও আদানি উ‌ইলমারের শেয়ার ক্রমাগত বৃদ্ধির দিকে ফলে তাদের সম্পত্তির পরিমাণ ক্রমশ ঊর্ধ্বমুখী হচ্ছে।

এই অবস্থাতে এখন বলা যায় যে, ইলন মাস্ক, জেফ বেজোস, বার্নার্ড আর্নল্ড ও বিলগেটস বিশ্বের অন্যতম ধনী ব্যক্তিদের তালিকার শীর্ষে অবস্থান করছেন। যদিও অন্যদের মোট সম্পদের পরিমাণ হ্রাস পাচ্ছে অর্থাৎ তারা রেড জোনে রয়েছেন কিন্তু গৌতম আদানির সম্পদের পরিমাণ স্থির বৃদ্ধির দিকে এগিয়ে যাচ্ছে অর্থাৎ তিনি এই মুহূর্তে গ্রিন জোনে অবস্থান করছেন। তাই বর্তমান পরিস্থিতির সাপেক্ষে বিশেষজ্ঞদের ধারণা যে, যেভাবে গৌতম আদানির সম্পদের পরিমাণ তীব্র গতিতে বাড়ছে সেখানে বলাই যায় যে এই গতিতে তার সম্পদের পরিমাণ বাড়তে থাকলে খুব শীঘ্রই তিনি বিশ্বের তৃতীয় ধনী ব্যক্তি হয়ে উঠবেন।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।