টলিউড

নিন্দুকদের উচিত জবাব দিয়ে অভিনেত্রী শ্রুতি বললেন, “আমি স্বর্ণেন্দুর ভরসায় ইন্ডাস্ট্রিতে আসিনি, তাই আমি কাজ পাচ্ছি না এটা ভুল, আমার মতো চরিত্র পাচ্ছি না বলে করছি না”

অভিনেত্রী শ্রুতি দাস, ত্রিনয়নী ধারাবাহিকের মধ্য দিয়ে অভিনয় জগতে পদার্পণ করলেও কিছুদিনের মধ্যেই বেশ জনপ্রিয়তা অর্জন করে ফেলেন দর্শকমহলে। আর তারপর “দেশের মাটি” ধারাবাহিকের মাধ্যমে তাঁর জনপ্রিয়তা দিন দিন আরো বাড়তে থাকে। কিন্তু দীর্ঘ ১০ মাস ধরে মেগা সিরিয়ালে অভিনয় করার পর হঠাৎই গায়েব হয়ে যান অভিনেত্রী। কিন্তু হঠাৎই কালার্স বাংলায় মহিষাসুরমর্দিনী শো তে দেবী কালিকা রূপে দেখা যাচ্ছে অভিনেত্রীকে। এতে তাঁর ফ্যানেরা খুবই খুশি হয়েছেন। এক বিশিষ্ট সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে অভিনেত্রী অকপটে কিছু কথা স্বীকার করেন।

সেই সংবাদমাধ্যম থেকে অভিনেত্রীকে কিছু প্রশ্ন করা হয়। তাই আজ তুলে ধরবো আপনাদের সামনে। অভিনেত্রীকে বলা হয়েছিল, “এবার কালার্স বাংলার মহালয়ার অংশ, একটানা পরপর তিন বছর ‘মহালয়া’ স্পেশ্যাল অনুষ্ঠানে। কেমন অভিজ্ঞতা?” অভিনেত্রী বলেন, “আমার তিন বছরের কেরিয়ারে একটানা তিনবার মহালয়ার অংশ হতে পেরেছি। এর জন্য সত্যি আমি ধন্য। প্রথমটা জি বাংলায় করেছি, দ্বিতীয়টা স্টার জলসায় আর এবার কালার্স বাংলায়। প্রথম কথা হচ্ছে, কালী চরিত্রের সঙ্গে আমি নিজেকে একাত্ম করতে পারি কারণ এটা শক্তির একটা রূপ, তার সঙ্গে নাচ উপরি পাওনা। বোল্ড আর স্ট্রং একটা চরিত্র করতে আমি সবসময়ই ভালোবাসি। কালীর চরিত্রে অভিনয় করাটাই একটা বিরাট আর্শীবাদ। আমি চ্যানেল কর্তৃপক্ষ এবং প্রযোজনা সংস্থা সুরিন্দর ফিল্মসকে ধন্যবাদ জানাব। সব মিলিয়ে একটা দুর্দান্ত একটা অভিজ্ঞতা।”

এবার কি তবে কালার্স বাংলার কোনো মেগা ধারাবাহিকে দেখা যেতে চলেছে শ্রুতিকে? এভাবে কি তিনি কামব্যাক করতে চলেছেন? এ প্রশ্নের উত্তর অভিনেত্রী বলেন, “না, এমন কোনও ব্যাপার নয়। এখন যেহেতু আমি স্টার বা জি-তে কাজ করছি না তাই… আসলে আমার কাছে যেটুকু খবর আছে, সমস্ত চ্যানেলই আমার সঙ্গে কাজ করতে চাইছে। আমার চ্যানেল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথাও হয়েছে, তবে আমার মতো চরিত্র এখনও আসেনি, তাই আমি কাজ করছি না।”

সোশ্যাল মিডিয়াতে অভিনেত্রীকে নিয়ে বারবার ট্রল করা হয়েছে যে শ্রুতির বয়ফ্রেন্ড স্বর্ণেন্দু পরিচালক হওয়া সত্ত্বেও শ্রুতির হাতে কাজ নেই কেন? এ প্রশ্নের উত্তরে অভিনেত্রী অকপটে জানান, “যদি আমি ওর সঙ্গে কাজ করি, তখন ওর বা আমার হেটার্সরা বলবে, শ্রুতি দাস অন্য কোথাউ কাজ পাচ্ছে না। কদিন আগে দেখলাম একজন বলছে, ‘ওকে তো ইন্ডাস্ট্রি থেকে ঘাড় ধাক্কা দিয়ে বার দিয়েছে’। ইন্ডাস্ট্রি থেকে আমাকে কেউ ঘাড় ধাক্কা দিয়ে বার করেনি বরং এখনও ইন্ডাস্ট্রির লোকজন সবাই আমাকে আদর-যত্ন করেন, আমার সবার সঙ্গেই বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক। ইন্ডাস্ট্রির খুব কম মানুষই আমার শক্রু, যাঁরা আমাকে পছন্দ করেন না। তবে আমাকে এখন থেকে বার করবার মতো নিম্নবিত্ত মানসিকতা কারুর নেই। এতোকিছু বাদ দিয়ে যদি আমি স্বর্নেন্দুর সঙ্গে কাজ করি, তাহলে সবাই বলবে শ্রুতি অন্য জায়গায় কাজ পাচ্ছে না, ওর বয়ফ্রেন্ড আছে তাই কাজ দিচ্ছে। সেই জন্য এই মুহূর্তে আমি ব্যক্তিগতভাবে চাই না স্বর্নেন্দু সমাদ্দারের সঙ্গে কাজ করতে। তবে একটা কথা স্পষ্ট করে বলতে চাই, ও আমার লাইফটাইম অ্যাসেট। আমার হারানোর কিচ্ছু নেই। কিন্তু আমি স্বর্নেন্দুর ভরসায় ইন্ডাস্ট্রিতে আসিনি। তাই আমি কাজ পাচ্ছি না এটা ভুল, আমার মতো চরিত্র পাচ্ছি না বলে করছি না।”

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।