কলকাতা

কলেজে ভর্তির নিয়মে বড় রদবদল! মমতার সম্মতিতে এইবার কলেজে ভর্তির ক্ষেত্রে বড় ভূমিকা নেবে কেন্দ্র সরকার

এত বছর ধরে স্নাতক স্তরে ভর্তির ক্ষেত্রে যে প্রক্রিয়া চলে এসেছে তার বদল ঘটতে চলেছে। স্নাতক স্তরে কলেজ ভর্তির নিয়ম পরিবর্তিত হতে চলেছে এইবার। ‌এইবার কেন্দ্রীয় ভাবে রাজ্যের কলেজগুলিতে ভর্তির প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবে। প্রত্যেকটি বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি নিজস্ব কেন্দ্রীয় পোর্টাল আছে তার মধ্য দিয়ে এই ভর্তি প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবে বলে জানা যাচ্ছে। স্নাতক স্তরে কলেজে ভর্তির ক্ষেত্রে এই যে নিয়মের বদল সেক্ষেত্রে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মাননীয় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সম্মত হয়েছেন বলেই বিকাশ ভবন সূত্রে খবর পাওয়া যাচ্ছে।

আরও পড়ুন: মোদীর তেলের দামের পাল্টা গ্যাসের দাম কমাতে বলেন মুখ্যমন্ত্রী

পশ্চিমবঙ্গের কলেজগুলোতে পড়ুয়া ভর্তির সময় দুর্নীতি করা হয়, টাকার বিনিময়ে কম মেধার পড়ুয়ারা আসন পায় বলে একটি অভিযোগ বহুকাল ধরেই চলে আসছে। সেই কারণেই কেন্দ্রীয়ভাবে ভর্তির প্রক্রিয়া চালু করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। নতুন নিয়ম নিয়ে খুব শীঘ্রই উচ্চশিক্ষা দপ্তর সকলের সঙ্গে আলোচনায় বসবেন। আগামী সপ্তাহে এই বৈঠক বসতে পারে বলেই খবর পাওয়া যাচ্ছে। এই প্রক্রিয়ায় একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে থাকা কতকগুলি কলেজে একজন কলেজপড়ুয়া আবেদন করতে পারবে তা এখনো অবধি জানা যায়নি। কারণ এই বিষয়ে এখনো অবধি চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। তবে শিক্ষা মহলের তরফ থেকে আশা রাখা হচ্ছে যে কেন্দ্রীয়ভাবে ভর্তির প্রক্রিয়া চালু হলে শিক্ষা ক্ষেত্রে দুর্নীতির মাত্রা অনেকখানি কমে যাবে।

অন্যদিকে এইবার অনলাইনে আবেদন জানাবার জন্য আবার অনলাইনে ফি জমা দিতে হতে পারে পড়ুয়াদের। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য করোনা মহামারীর কারণে দেশজুড়ে যে অর্থনৈতিক সংকট দেখা গেছে, সেই প্রভাব যাতে পড়ুয়াদের উপর না পড়ে, সেদিকে লক্ষ্য রেখে গত দুই বছর ধরে কলেজে ভর্তির আবেদনের জন্য পড়ুয়াদের কোন ফি দিতে হচ্ছে না। কিন্তু নিয়মের বদলের সাথে সাথে আবার অনলাইনে আবেদনের ফি জমা দিতে হবে কিনা এই প্রশ্ন রীতিমতো উঠছে। তবে এই সংক্রান্ত যাবতীয় সিদ্ধান্ত আগামী সপ্তাহের বৈঠকে নেওয়া হবে। তাই কিছুই জানা সম্ভব হচ্ছে না এই মুহূর্তে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য ২০১১ সালের বামফ্রন্ট সরকারকে হারিয়ে তৃণমূল সরকারের প্রথমবার ক্ষমতায় আসার পর কেন্দ্রীয়ভাবে কলেজগুলোতে ভর্তি প্রক্রিয়া চালুর সিদ্ধান্ত তৃণমূল সরকার নিলেও সেই সময় তা বাস্তবে রূপ পায়নি। সেই কারণে বিগত কয়েক বছর ধরে অনলাইনে ভর্তি প্রক্রিয়া চললেও কেন্দ্রীয় ভাবে এখনো পড়ুয়াদের কলেজে ভর্তি করা হয় না।

স্নাতক স্তরে বিগত বছরগুলোতে অনলাইনে ফর্ম তোলা ও জমা দেওয়ার প্রক্রিয়া হলেও কাউন্সেলিং এর জন্য পড়ুয়াদের সেই কলেজেই যেতে হতো, সেই সময়ে টাকার বিনিময় আসন পাওয়ার মতো ঘটনা ঘটতো বলে অভিযোগ। এই দুর্নীতি আটকাতে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিলো যে ছাত্র সংসদ কোন রকম হেল্প ডেস্ক কলেজে করতে পারবে না। ক্লাস শুরু হওয়ার আগে পড়ুয়াদের কলেজে আসা নিষেধ বলেও নির্দেশ জারি করা হয়েছিল। তবু কিছু কিছু ক্ষেত্রে দুর্নীতি হচ্ছিলো বলে অভিযোগ ওঠে। কেন্দ্রীয় ভর্তি প্রক্রিয়া শুরু হলে সেই সকল সমস্যার ইতি ঘটবে বলেই আশা রাখছেন শিক্ষা মহলের অনেকেই।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।